পাতা:আত্মচরিত (৪র্থ সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৪২৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Xvtvv সততা ; সার্কলেটিং লাইব্ৰেৰী v99

  • দেখিলাম, শিক্ষিত দেশহিতৈষী ব্যক্তিদিগের মনে নিয়শ্রেণীর মধ্যে শিক্ষাবিস্তারের উৎসাহ অতিশয় প্রবল। তাহার ফলস্বরূপ ঐ শ্রেণীর মানুষের মনে জ্ঞানস্পৃহা দিন দিন বাড়িতেছে, এবং তাহদের ব্যবহারের জন্য চারিদিকে অসংখ্য ছোট ছোট পুস্তকালয় স্থাপিত হইয়াছে। প্ৰায় প্ৰত্যেক রাজপথে দুই-দশখানি বাড়ীর পরেই একটি ক্ষুদ্র পুস্তকালয়। নিয়শ্রেণীর মানুষেরা সেখানে নামমাত্র কিছু পয়সা জমা দিয়া সপ্তাহে সপ্তাহে বই লইয়া যাইতেছে ও ঘরে গিয়া বসিয়া পড়িয়া সে পুস্তক আবার ফিরাইয়া দিতেছে। ইহার অনেক পুস্তকালয় দোকান ঘরের মধ্যে। দোকানদার অপরাপর জিনিসের ব্যবস্থা করিতেছে, সেই সঙ্গে একপাশে একটি পুস্তকালয় রাখিয়াও কিছু উপাৰ্জন করিতেছে। ইহা ভিন্ন স্বল্পমূল্যে বিক্রেয় ব্যবহৃত পুস্তকের দোকান অগণ্য।

এইরূপ একটি পুস্তকালয়-বিশিষ্ট দোকানে গিয়া একদিন যাহা দেখিলাম ও শুনিলাম, তাজা মনে রহিয়াছে । আমি দোকানে অন্য কাজে গিয়া দেখি, এক পার্শ্বে দুইটি আলমারিতে কতকগুলি পুস্তক রহিয়াছে। মনে করিলাম, পুস্তকগুলি স্বল্পমূল্যের ব্যবহৃত পুস্তক। জিজ্ঞাসা করিলাম। এসব পুস্তক কি বিক্রয়ের জন্য ? উত্তর-না, এটা সাকুলেটিং লাইব্রেরী। আমি-এসব পুস্তক কারা লয় ? উত্তর-এই পাড়ার নিয়শ্রেণী লোকেরা। আমি-আমি কি বই লইতে পারি ? উত্তর-ই পারেন, এ ত সাধারণের জন্য । তারপর আমি একখানি ৬৭ টাকা দামের বই লইয়া দুই আনা পয়সা জমা দিয়া ও আমার নাম ও বাড়ীর ঠিকানা লিখিয়া রাখিয়া আসিলাম । আবার সপ্তাহান্তে বইখানি ফেরৎ দিয়া আবার দুই আনা দিয়া আরএকখানি বই লইয়া আসিলাম। এইরূপ তিন চারি সপ্তাহের পর