পাতা:আত্মচরিত (৪র্থ সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/৪৪০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


w8 শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচরিত [ ১৮শ পরিঃ BD DBD BDmDDB BDBBDBD DBKBBBSS ED D BDDBD JSqAq এই কেন্বিজ পরিদর্শনকালের আর-একটী ঘটনা স্মরণ আছে। ঋষিপ্রতিম। ই বি কাউয়েল, যিনি এক সময়ে প্রেসিডেন্সী কলেজের প্রফেসর ও সংস্কৃত কলেজের প্রিন্সিপাল ছিলেন, যাহার সাধু চরিত্রের সংশ্রবে। আসিয়া প্রেসিডেন্সী কলেজের কতিপয় ছাত্ৰ খ্ৰীষ্টধৰ্ম্মে দীক্ষিত হয়, তিনি তখন সংস্কৃতের অধ্যাপক রূপে কেন্বিজে বাস করিতেছিলেন। অধ্যাপকতা করিবার জন্য তঁহাকে কলেজে যাইতে হইত না, কিন্তু সংস্কৃতশিক্ষার্থী ছাত্ৰগণ র্তাহার ভবনে আসিয়া পড়িয়া যাইত । সেই প্ৰবীণ মানুষ যখন শুনিলেন যে ভারতবর্ষের একজন নেতৃস্থানীয় লোক কেন্বিজের কলেজ সকল পরিদর্শন করিতে আসিয়াছেন, তখন সেই দুৰ্য্যোগের ভিতরেও, আমি যে বন্ধুর বাড়ীতে উঠিয়াছিলাম, তাহার ভবনে "আসিয়া আমার সহিত সাক্ষাৎ করিলেন । আমি বাল্যকালে সংস্কৃত কলেজে পড়িবার সময় তঁহাকে আমাদের কলেজের অধ্যক্ষ রূপে দেখিয়াছিলাম, এবং কিরূপে তাহার সাধুতার দ্বারা মুগ্ধ হইয়াছিলাম, তাহার বিবরণ অগ্ৰেই দিয়াছি। এখন দেখিলাম সেই সাধু পুরুষ পালিতকেশ, স্থবির ; তাহার শুভ্ৰ শ্মশ্রুজােল নাভিকে অতিক্রম করিয়া নামিয়াছে; চক্ষুদ্বয়ে ও মুখের আকৃতিতে গভীর জ্ঞানানুরাগ ও সাধুতার দেদীপ্যমান প্ৰমাণ রহিয়াছে। তঁহাকে আসিতে দেখিয়া আমি আশ্চৰ্য্যান্বিত হইয়া গেলাম। র্তাহাকে বালককালে কি দেখিয়াছিলাম, এবং তিনি আমার জীবনে সত্যানুরাগ কিরূপে উদ্দীপ্ত করিয়াছিলেন তাহা যখন বলিলাম, এবং মিউটিনির হাঙ্গামা থামিলে নববর্ষে পারিতোষিক বিতরণের সময় তিনি যে সংস্কৃত কবিতাটি রচনা করিয়া পাঠ করিয়াছিলেন। তাহা যখন আবৃত্তি করিলাম, তখন তিনি বিস্ময় ও আনন্দে পুর্ণ হইয়া উঠিলেন, এবং কেবলমাত্র আমাকে বুকে জড়াইয়া কোলে লইতে বাকি রাখিলেন। তঁহার রচিতৃ সেই কবিতাটি এই--