পাতা:আত্মজীবনী ও স্মৃতি-তর্পন - জলধর সেন.pdf/৩৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আত্মজীবনী ও স্মৃতি-তৰ্পণ ROS পরীক্ষায় গণিতে পূর্ণ নম্বর লাভ করেছিলুম। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশিকা পরীক্ষায় পূর্ণ নম্বর পেয়ে, গণিতে সর্বোচ্চ স্থান লাভ করেছিলুম, আর এল, এ পরীক্ষার সময় জেনারেল এসেমব্রি কলেজে পূজনীয় অধ্যাপক গৌরীশঙ্কর দে মহাশয়ের সর্বশ্রেষ্ঠ ছাত্র হয়েছিলুম। এল, এ পরীক্ষায়ও গণিতে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছিলুম। এখন যদিও অনেক ভুলে গিয়েছি, তবুও মনে আছে, আমি যখন জেনারেল এসেমব্লি কলেজে দ্বিতীয় বাৰ্ষিক শ্রেণীতে পড়ি, তখন বাড়িতে বসে গণিতশাস্ত্ৰ এত চর্চা করেছিলাম যে, সে সময়ের এম, এ ক্লাসের গণিতের সমস্ত পাঠ্য আমার আয়ত্ত হয়ে গিয়েছিল । এমন কি তার কয়েক বৎসর পরে আমি যখন তথাকথিত সন্ন্যাস অবলম্বন করে লক্ষ্যভ্ৰষ্ট ধূমকেতুর মত হিমালয়ের কোলের ডেরাদুন সহরে উপস্থিত হয়েছিলুম, তখন সেখানকারী Trigonometrical Survey অফিসের প্রধান Computor প্ৰসিদ্ধ গণিতজ্ঞ পণ্ডিত অধুনা পরলোকগত পূজনীয় কালীমোহন ঘোষ মহাশয় আমার গণিত -বিদ্যা পরীক্ষা করে 'অবাক হয়ে গিয়েছিলেন । মনে পড়ে আমার বিদ্যা পরীক্ষার জন্যে তিনি একটা জ্যামিতির প্রশ্ন আমাকে দেন, আমি ক্রমাগত তিনদিন অবিশ্রান্ত পরিশ্রম ক’রে ও তিন-শ রেখাঙ্কন ক’রে সেই উৎকট প্রশ্নের সমাধান করি । আমার বাঙ্গলা স্কুলের পড়া আর বেশীদিন আগাল না। প্রথম শ্রেণীতে উঠেই আমার চোখের অসুখ এমন বেড়ে উঠল যে, গ্রামের ডাক্তার আমার পড়াশুনা একেবারে বন্ধ করার হুকুম দিলেন, আর যত শীঘ্ৰ সম্ভব কলকাতায় চিকিৎসার জন্যে পাঠাবার ব্যবস্থা করতে বললেন। আমার পিসতুতো বড় ভাই স্বৰ্গীয় বন্ধুবিহারী ব্ৰহ্ম কলকাতায় থাকতেন । আমাদেরই গ্রামের নিকটপ্ৰতিবেশী নবকৃষ্ণ সাহা মহাশয়ের কলকাতায় চাউলের কারবার ছিল, দাদা সেই আড়তের প্রধান গদিয়ান ছিলেন। আমার জোঠতুতো বড় ভাই তার আগের বছরেই গ্রামের ইংরাজী স্কুল থেকে প্ৰবেশিকা পরীক্ষায় ফেল করে কলিকাতার ফ্রি চার্চ ইনষ্টিটিউশনে পড়তে এসেছিলেন। তখন ইষ্টাৰ্ণ বেঙ্গল রেল লাইন কুষ্টিয়া পৰ্যন্ত গিয়েছিল । আর পদ্মাস্ত্ৰীৱে গোয়ালন্দ পর্যন্তু রেল লাইন করবার ব্যবস্থা হচ্ছিল। ঢাকা ও পূর্ববঙ্গের যাত্রীদের কুষ্টিয়ায় নেমে নৌকো করে যেতে হ’ত । ষ্টীমার যাতায়াত তখনও হয়নি। জ্যাঠামশায় তখন বেঁচে ছিলেন, তিনি আমার পিসতুতো ভাইকে লিখে পাঠালেন। চিঠি পেয়ে বড় দাদা একদিন কলকাতা থেকে এসে আমায় সেখানে নিয়ে যাবার ব্যবস্থা করলেন । আমি তখন বালক। কলকাতায় গিয়ে সেই বয়সে আড়াতে কেমন করে থাকবে, এই