পাতা:আদায়ের ইতিহাস - মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ইতিহাস এই সব ভাবিতে ভাবিতে ত্ৰিষ্টপের মনে পড়িয়া গেল, সকালে সে চা খায় নাই, রীতিমত অস্বস্তিবোধ হইতেছে ; ডাইনে বিধুর চায়ের দোকান,-“স্বাধীন ভারত রেস্টরেন্ট'। এক কাপ চা খাইতে খাইতে আর একবার চাকরীর কথাটা ভাবিয়া দেখা যাক । তক্তার মত চ্যাপ্টা বিধুর করাতের মত দাতাল অমায়িক হাসির জবাবে একটু হাসিয়া, দেওয়ালে জরিপাড় শাড়ী পরা জগদ্ধাত্রীর ছবির পাশে পাকা ফলের মত টসটসে ও গোলাকার উলঙ্গ জাপানী মেয়ের ছবির দিকে আনমনে চাহিয়া চুমুক দিতে দিতে চায়ের কাপ খালি হইয়া গেল এলোমেলো ভাবনাগুলিকে কোনমতেই আয়ত্ত করা গেল না । ‘কলেজ স্কোয়ারে সস্তায় পাওয়া যায়, তিষ্ট।” মণীশ কাছে আসিয়া বসিয়াছে, আলগোছে গরম চায়ের কাপে চুমুক দিতে গিয়া আড়চোখে চাহিয়া আছে। জুতা আর চুলে চকচকে পালিশ, পাঞ্জাবির হাত গিলাকীরা, তলায় গেঞ্জি দেখা যায়, সোনার বোতামগুলি সাদা শূন্যতার মধ্যে টুকরো টুকরো সোনালী অলঙ্কারের মত । “কি পাওয়া যায় ?” ‘চীন জাপানের মেয়ে-এদেশীও পাওয়া যায়। কষ্ট করে এখানে না এসে কয়েকটা কিনে এনে ঘরে টাঙ্গিয়ে রাখিস, সারাদিন যত খুন্সী দেখতে পারবি।” মনে মনে বিরক্ত হইলেও, ত্ৰিষ্টুপ একটু হাসিল। “তবে একটা বিয়ে করলে, অবশ্য সব হাঙ্গামা চুকে যায়। তাই कद्र ना ? এই ধরনের পরিহাস করিতে মণীশ খুব পটু। বোধ হয় সেই জন্যই মণীশকে সে পছন্দ করে না । মানুষটা মণীশ খারাপ নয় ; BBBKBB BD DBD DBDD BD S DDD DD DBBLGS সেটা ত্রিষ্টপ অপরাধ মনে করে না। মণীশের বুদ্ধি খুব ভীষ্ম,