পাতা:আদায়ের ইতিহাস - মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/৫৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ইতিহাস Gy "একটু বোসো, তিষ্ট।’ ত্ৰিষ্টপ নীরবে বসিয়া পড়িল । ‘আমি কুন্তীকে পাঠিয়ে দিচ্ছি। তুমি ওকে জিজ্ঞেস কর, ও যদি রাজী থাকে। আমি অমত করব না ।” “আপনিই বরং জিজ্ঞেস করুন।” মণীশ মৃদু একটু হাসিল। সে ত্ৰিষ্টগুপের ক্ষোভকে পরিণত করিয়া দিল ক্ৰোধে । খেলা করিতেছে, তার সমস্ত জীবন লইয়া মণীশ খেলা করিতেছে ! 'না, তোমার জিজ্ঞেস করাই ভাল, তিষ্ট। আমি জিজ্ঞেস করলে কি জবাব দেবে আমি জানি। বলবে, “আমি কিছু জানি নে দাদা, তোমার যা খুলী কর।” ত্ৰিষ্টুপ ভাবিল, বটে ! কুন্তলার দাদা-ভক্তি এত গভীর! ‘তাছাড়া তোমার কথাটাও একটু ভাবতে হবে বৈকি। তুমি ইচ্ছে করলে আমি যা বলেছি কুন্তীকে জানিয়ে দিতে পাের, তিষ্ট । ७ ब्रांडी श्gल अभि उभऊ कद्रद न ।।” মণীশ চলিয়া যাওয়ার একটু পরেই কুন্তলা ঘরে আসিল । “বলুন কি ফরমাস আছে।” “বোসো, কুন্তলা।” কুন্তলা বসিল না। জিজ্ঞাসু দৃষ্টিতে চাহিয়া দাড়াইয়া রহিল। “মনিদাকে বলছিলাম, তোমায় আমি বিয়ে করতে চাই।” ‘ও !’ বলিয়া কুন্তলা তার মুখ হইতে দৃষ্টিটা শুধু মেঝেতে নামাইয়া লইয়া গেল । “তুমি তো জানো আমি তোমাকে-” ‘দাদা কি বললেন ? ত্ৰিষ্টপের প্রেমানিবেদনে বাধা দিয়া কুন্তলা জিজ্ঞাসা করিল। १८ङाभाद्र भङ छन्मgङ दव्णgछन्म :' ত্ৰিষ্টুপ জবাবের প্রতীক্ষা করে। কুন্তলা চুপ করিয়া থাকে।