প্রধান মেনু খুলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সপ্তম গর্ভাঙ্ক । ] আমাদিশূত্র জগত। এইবার তোমায় বলতে হবে পিশাচ ! কোন অন্ধকারে দৃষ্টি হারিয়ে অকস্মাৎ এ নরক-চিতা জ্বালালে ? কিসের আশায় উন্মাদ হয়ে রাত্ৰিযোগে নিরীহ ঘুমন্ত মালবে রক্তের স্রোত বহালে ? কোন শক্তির পাশবিক উত্তেজনায় এই চির-বিনিস্তব্ধ পুতি তপোণ্ডুমি ভারতবর্ষের শান্তিভঙ্গ করলে ? বল-বল ; আর চুপ ক’রে থাকলে অব্যাহতি माझे । আদিশূর। [ গৰ্ব্বভাবে বলিলেন ] আমি বন্দী,-উন্মুক্ত অসির নীচে, বুক পেতে দিতে পারি। —তুবানলে দাড়িয়ে থাকতে পারি-এক এক খণ্ড ক’রে আমার দেহের সমস্ত মাংস কেটে কুকুরকে খাওয়াতে পারি, তবু কারো কাছে আমার কাৰ্য্যের কারণ নির্দেশ করতে রাজি নই। বীরসিংহ। ওকে বীরত্ব বলে না। রাজা ! মৃত্যু অনিবাৰ্য্য জেনে জীবনে উপেক্ষা প্ৰদৰ্শন, ও পণ্ডতেও’ক’রে থাকে। করলে কি রাজা ? মালব নিতে গিয়ে সাধের বাঙ্গলা দিলে যে ! আদিশূর। দিলাম ; বাঙ্গলা নিয়ে তো জন্মাই নাই ? বাঙ্গল,তো ii BDBB BDDD DuDB DBDu DD DBDDBSYBD S uuDDSqqSA পড়েছি। জগত। শুধু বাঙ্গলা দেওয়া নয় রাজা! আর একটা কথা জেনে দাও ; মালবের এই বীভৎস হত্যাকাণ্ডের প্রতিশোধে তোমার রাজ পরিবার বলতে কেউ থাকবে না। আদিশূর। নিজেই যখন যেতে বসেছি, তখন কে থাকবে, কে না। থাকবে, তা নিয়ে আদিশূব মাথা ঘামায় না। বীরসিংহ। তোমার চক্ষের সমক্ষে তোমার স্ত্রী পুত্রকে হত্যা করা হবে জান ? O আদিশূর। তুমিও জেনে রাজা ! জগতের যত প্রকার করুণ দৃশ্য { ৬৩ ]