প্রধান মেনু খুলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অনাদিশগুলির [ দ্বিতীয় অঙ্ক । আদিশূর। স্থিরনেত্রে দাড়িয়ে দেখবে। একটী পলক পড়বে না-একটি হৃদিকম্প উঠবে না-এক বিন্দু সহানুভূতি দেখতে পাবে না । বীরসিংহ। রাক্ষস ! স্বাক্ষস ! আদিশূর। তা হ’তেও যদি কিছু থাকে-আমি তাই। zBBS DS BDD DB BD D BDDSSBDD DDB DBBDD টল টল করছে- তোমার নিশ্বাসে বাতাস বিষাক্ত হয়ে উঠেছে-তোমার চাউনিতে গাছের পাতা পৰ্য্যন্ত বলসে যাচ্ছে। [ অসি.নিষ্কাসন ] তোমাক কোন প্রার্থনা আছে ? আদিশূর। কিছু না ; তবে একটা কথা আমার বলবার আছে শক্তিকে । জগত। ব’লে নাও, আর হবে না। আদিশূর। শক্তি ! আমার সময় সংক্ষেপ, বেশী কথা বলতেও চাই DD S BBDB BBBDBD DD DBBD DYSqYDSLBSDBBB BD DBDDBDD দিতে হয়-দিও, আমার বাঙ্গলায় দুৰ্ভিক্ষ আনতে হয়-এনো, আমার লক্ষ্মীকে তুমি গ্ৰহণ ক’রো ; সৈ আমার মা-মরা ছেলে-বড় অভিমানিনী ; [ তাহার চক্ষে এক বিন্দু অশ্রু টল টল করিতে দেখা গেল ; পরে আত্মসম্বরণ করিয়া বলিলেন ] বাস-হ’য়েছে ; এস জগতবৰ্দ্ধন ! তোমার অন্ত্রের ধারা পরখ করি । জগত । এস, আমিও তোমার রক্তে একটা তীৰ্থ তৈরী করি } [ অন্ত্রাঘাতে উন্তত হইলেন। ] সহসা সনাতন উপস্থিত হইলেন । সনাক্তন । ৩ বাধা দিয়া বলিলেন ] শান্ত হও জগত ! ভারতে তীর্থের অভাব নাই, আর ও কীৰ্ত্তি রাখতে হবে না। bs