পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/১০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আদিশূর ও বল্লাল সেন । סי পয় বৎসরান্তে রাজ্যে অনাবৃষ্টি ও প্রাসাদোপরি গৃধপাত প্রভৃতি দৈবোৎপাত ভাবী অমঙ্গলের চিহ্ন প্রকটিত করিলে, মহারাজ আদিশূর দৈবকাৰ্য্যদ্বারা তন্নিবারণে কৃত-সঙ্কল্প হইলেন, এবং পুরস্থ ব্রাহ্মণগণকে আহবান করিয়া কহিলেন, “আপনার বেদবিধি অনুসারে যজ্ঞের দ্রব্যাদি আহরণ করিয়া রাজ্যের অমঙ্গল নিরাকরণের উদ্যোগ করুন” । বৌদ্ধ-বিপ্লবে বঙ্গীয় ব্রাহ্মণগণের মধ্যে বৈদিক ক্রিয়া লোপ হইয়াছিল, স্থতরাং কেহই রাজার ঈপ্সিত কার্য্যে ব্ৰতী হইতে পারিলেন না । আদিশূর অনন্যোপায় হইয়া বেদজ্ঞ ও সাগ্নিক পঞ্চ ব্রাহ্মণ আনয়নার্থ কাকুজাধীশ্বর বীরসিংহের নিকট দূত প্রেরণ করিলেন । কাকুজাগত পঞ্চ ব্রাহ্মণ বৰ্ম্ম, চৰ্ম্ম ও ধনুৰ্ব্বাণ প্রভৃতি সামরিক সজ্জায় স্থসজ্জিত হইয়। অশ্বারোহণে রাজদ্বারে উপস্থিত হইলে দৌবারিকগণ আদিশূর সমীপে ঈদৃশ অসামান্য বীর-বেশধারী ব্রাহ্মণগণের আগমন বার্তা নিবেদন করিল । রাজা ব্রাহ্মণগণের যুদ্ধবেশ এবং পাদুকা-সংশ্লিষ্ট-পদে তাম্বুল চর্বণ প্রভৃতি ব্রাহ্মণবিরুদ্ধ আচরণ সম্বাদে হৃতশ্রদ্ধ হইয়া কাকুজাগত পঞ্চ

  • আদিশূর কাপুকুজেরশ্বর বীরসিংহ সমীপে নিম্ন লিখিত কতিপয় শ্লোক

লিখিয়া লিপি প্রেরণ করেন :– স্বকৃত সুকৃত সংঘtঃ সৰ্ব্বশাস্ত্রার্থ দক্ষ, লপিতহতবিপক্ষাঃ স্বস্তিবাক্যাঃ শ্রীতিজ্ঞা: | সুজিতস্থগতবৃন্দে গৌড়রাজ্যে মদীয়ে, দ্বিজকুলবরজাতাঃ সানুকম্পা: প্রায়ান্তু । নৃপতি সুকৃতিসারঃ স্বীয়বংশাবতারঃ, প্রবলবলবিচারে বীরসিংহোইতিবীরঃ । ময়িবর সখি তাস্তে ভূমিদেবান সশূদ্রান, পুনরপি মম গৌড়ে প্রাপ যত্নঃ নিতান্তং ॥