পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আদিশূর ও বল্লাল সেন। *S) করা যাইতেছে # কেশবসেন প্রদত্ত তাম্রশাসনপত্র ৮ কানাইলাল ঠাকুরের ইদৗলপুর পরগণায় ভূপৃষ্ঠ হইতে উদ্ধৃত হইয়াছিল। ইহাতে লিখিত আছে বিজয়সেনের পুত্র বল্লালসেন, তৎপুত্র লক্ষণসেন, তৎপুত্র কেশবসেন বাৎস্য গোত্রসস্তৃত ঈশ্বর দেবশৰ্মাকে তিনখানি গ্রাম প্রদান করেন। উক্ত গ্রামত্রয় বীক্রমপুরান্তর্গত ছিল । এই দানপত্রের সময়ের নির্ণয় নাই, অথবা সন তারিখ যে স্থানে লেখা ছিল, সেই স্থান বিনষ্ট হইয়। গিয়াছে। দানপত্রে কেশবসেন প্রভৃতির জাতির উল্লেখ নাই । কিন্তু ইহারা সোমবংশোৎপন্ন, লেখা আছে । শ্লোকগুলির এক স্থানে কেশবসেন আপনাকে “ সেনকুল কমলবিকাশভাস্করঃ ” উল্লেখ করিয়াছেন । ৭ রাজসাহীর প্রস্তরাঙ্কিত শ্লোকে, চন্দ্রবংশোৎপন্ন বীরসেন ংশে সামন্তসেন তৎপুত্র হেমন্তসেন তৎপুত্র বিজয়সেন, এই চারিজন নৃপতির নামোল্লেখ আছে। কিন্তু র্তাহারা কোন জাতি, এবং কোন সময়ে প্রাচুভূত হইয়াছিলেন, এবং কোন কোন দেশ শাসন করিতেন, ইত্যাদি ঐতিহাসিক কোন ঘটনারই উল্লেখ নাই। উমাপতিধর এই শ্লোকগুলির রচয়িতা ; তিনি অতিশয় অত্যুক্তি প্রিয় এবং বহুভাষী ছিলেন,

  • তাম্র শাসন এবং প্রস্তরফলকের বিশেষ বিবরণ ও প্রতিলিপি পরিশিষ্টে দৃষ্টব্য ।

+ কেশবসেন প্রদত্ত তাম্রসাশন ভিন্ন অপর একখানি তাম্রসাশন বাখরগঞ্জে পাওয়া গিয়াছে। ইহাতে সেনবংশীয় কএক নৃপতির নামোল্লেখ আছে, বল্লালের পুত্র লক্ষ্মণসেনের সময়ে এই তাম্রশাসন খোদিত হয়, এবং ইহাতে সেনবংশীয়ের বৈদ্যজাতি স্পষ্ট উল্লেখ আছে। পরিশিষ্টে এই তাম্রশাসন পত্রের বিশেষ বিবরণ লিপিবদ্ধ করা গেল ।