পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/৩৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ミ ア আদিশূব ও বল্লাল সেন । " নামে স্থহোতারের দুই পুত্র জন্ম গ্রহণ করেন । গৃৎসমৎ হইতে ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয় এবং বৈশ্যগণ জন্ম গ্রহণ করিয়াছিলেন । ণ" হরিবংশ এবং ভাগবতাদি পুরাণোদ্ধত এই সকল শ্লোক দ্বারা স্পষ্টই উপলদ্ধি হয় যে, পুরাকালে এক ব্যক্তি হইতে ভিন্ন ভিন্ন জাতির উৎপত্তি হইয়াছে, এবং সূৰ্য্য ও চন্দ্রবংশে অনেক ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয় ও বৈশ্যগণ জন্ম গ্রহণ করিয়াছিলেন, তাহাদিগের সন্ততিগণ তৎপরকালে ভিন্ন ভিন্ন জাতি হইয়াও, চন্দ্র এবং সূৰ্য্যবংশোৎপন্ন বর্ণিত হইয়াছেন। অতএব সেনবংশীয় নৃপতিগণ চন্দ্রবংশ হইতে উৎপন্ন কেবল ইহাই উল্লেখ থাকিলে তাহারা যে ক্ষত্ৰিয় জাতি, ইহা কোন রূপে নিৰ্দ্ধারণ করিতে পারা যায় না । অতএব রাজেন্দ্র বাবুর প্রথম স্থাপনা ভ্ৰম পূর্ণ বলিয়। বোধ হইতেছে। রাজসাহীর প্রস্তরফলকাঙ্কিত শ্লোক সমূহের কোনটীতেই, স্পষ্টাভিধানে বীরসেনবংশীয় নৃপতিদিগের জাতির উল্লেখ নাই। পঞ্চম শ্লোকে “ সব্রহ্মক্ষত্রিয়ানামজনিকুলশিরদামসামন্তসেনঃ ”ঃ এই চরণেও সামন্তসেনের ক্ষত্ৰিয়ত্ব স্পষ্টভি ততোর্থবিতথোনাম ভরদ্বাজসুতোহভবৎ । ততোর্থবিতথেজাতে ভরতপ্তদিবংযযৌ । সচাপিবিতথঃ পুত্রান জনয়ামাসপঞ্চবৈ। মুহোত্ৰঞ্চ স্বহোতারং গয়ং গর্গস্তথৈবচ | কপিলঞ্চ মহাত্মানং স্বহোত্রস্য সুতদ্বয়ং। কাশিকশ মহাসত্বস্তথাগৃৎসমতিনৃপ । তথাগুৎসমতেঃ পুত্ৰাঃ ব্রহ্মণা: ক্ষত্রিয়াবিশঃ। - হরিবংশ, ছদ্মন্তবংশ বর্ণনে । * রাজসাহীর প্রস্তরঙ্কিত শ্লোকের ৫ম শ্লোক দেখুন।