পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/৪৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৩৬ । আদিশূর ও বল্লাল সেন । করাও সামাজিক রীতিবিরুদ্ধ এবং মানব-প্রবৃত্তির সম্পূর্ণ বিপরীত । - যদি বীরসেন যথার্থই আদিশূর হইতেন, তবে কবি অবশ্যই তাহার যশোবর্ণনসময়ে পঞ্চব্রাহ্মণের বঙ্গে সংস্থাপন রূপ প্রধান ঘটনার অবতারণা করিতেন। কবিকর্তৃক এতদ্বিষয়ে তৃষ্ণীম্ভাব অবলম্বন, বীরসেন যে পঞ্চব্রাহ্মণের আনয়িত নহেন, তাহাই স্পষ্টাভিধানে প্রকাশ করিতেছে। রাজসাহীর প্রস্তরাঙ্কিত শ্লোকের চতুর্থ শ্লোকে বীরসেন দাক্ষিণাত্যের রাজা ছিলেন, লিখিত আছে । তদীয় বংশে সামন্তসেন জন্ম গ্রহণ করেন, তিনি কর্ণাট দেশ পরাজয় করিয়াছিলেন এবং বৃদ্ধ বয়সে গঙ্গাতীরে তপস্বিগণ-পরিবেষ্টিত হইয়া কালযাপন করিয়াছিলেন । পঞ্চম, ষষ্ঠ, সপ্তম, অষ্টম ও নবম শ্লোকে এই সকল ঘটন। বর্ণিত আছে। অতএব বীরসেনের সহিত বঙ্গদেশের যে কোন প্রকার সংশ্রব ছিল না, তদ্বিষয়ের আর অণুমাত্র সন্দেহ নাই। তিনি বঙ্গদেশের অধিপতি হইলে, তদীয় বর্ণনাত্মক শ্লোকে অবশ্যই বঙ্গদেশবিজয়বাৰ্ত্ত লিখিত থাকিত । পরাশর-তনয় ব্যাসদেব বীরসেন প্রভৃতির যশোবর্ণন করিয়াছেন, চতুর্থ শ্লোকে ইহাও উল্লেখ আছে। বীরসেন এতন্নিবন্ধন ব্যাসের পূর্ববর্তী অথবা সমকালবৰ্ত্তী ছিলেন প্রকাশ পাইতেছে, আদিশূর খৃষ্টাব্দ আরম্ভ হওয়ার পরে বঙ্গদেশে সাম্রাজ্য স্থাপন করেন। অতএব ব্যাসের সমকালিক বীরসেনকে আদিশূর নির্ণয় করা কোন রূপেই সঙ্গত বলিয়া বোধ হয় না। - ফলতঃ রাজসাহীর প্রস্তরফলক-খোদিত শ্লোকদ্বারা আদি