পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/৫৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8૭ আদিশূর ও বল্লাল সেন । ২য় ৷ অম্বষ্ঠ নামে এক প্রদেশ ভারতবর্ষে বিদ্যমান ছিল, তদেশবাসিদিগকে অম্বষ্ঠ কহিত । - - ৩য় অম্বষ্ঠ ও ক্ষত্রিয় একাৰ্থ প্রতিপাদক শব্দ নহে, ক্ষত্ৰিয় শব্দের পরিবর্তে অম্বষ্ঠ শব্দের ব্যবহার কোথায়ও দৃষ্ট হয় না। সংস্কৃত কোন অভিধানেই অম্বষ্ঠ ও ক্ষত্রিয় এক জাতিবাচক উল্লেখ নাই। স্থতরাং ব্রাহ্মণ বলিলে যেরূপ ব্রাহ্মণ ভিন্ন অন্য জাতি বুঝায় না, তদ্রুপ অম্বষ্ঠ বলিলে অম্বষ্ঠ ভিন্ন অন্য কোন জাতি বুঝায় না ! এক্ষণে দেখিতে হইবে,আদিশূর অথবা সেনবংশীয় নৃপতিগণ সম্বন্ধে জনপ্রবাদ ভ্রমপূর্ণ সম্ভব কি না ? আদিশূর বঙ্গদেশ বিজয় করিয়া স্বীয় সাম্রাজ্য স্থাপন করিলে, তদীয় প্রজাপুঞ্জের সকলেই তাহার আভিজাত্য এবং জাতিপরিচয় জানিতে কৌতুহলাক্রান্ত হইয়াছিল সন্দেহ নাই । যদি আদিশূর আপনাকে ক্ষত্রিয়জাতি উল্লেখ করিতেন, তবে তাহার জাতি সম্বন্ধে কিম্বদন্তীও তদনুযায়ী হইত। ক্ষত্রিয়জাতি স্পষ্টতঃ নির্দেশ করিলে তাহাকে কেহই অম্বষ্ঠ বলিতে সাহসী হইত না । আদিশূর ও সেনবংশীয় নৃপতিগণ যে তাম্বষ্ঠদেশবাসী ইহার কোন প্রমাণ কোন স্থানে প্রাপ্ত হওয়া যায় না, তথাপি রাজেন্দ্রবাবুর অনুযানই যেন স্বীকার করিলাম। আদিশূর বঙ্গদেশ বিজয়ের পর নিজের জাতি নির্দেশ না করিয়া, কেবল অম্বষ্ঠ বলিয়া পরিচয় প্রদান করিলে, সাধারণ লোকে তাহাকে অম্বষ্ঠ (অর্থাৎ বৈদ্যজাতীয় ) নির্দেশ করিল। কিন্তু র্যাহারা বিষ্ণুপুরাণ পাঠদ্বারা, অথবা অন্যান্য প্রকারে অম্বষ্ঠ নামে প্রদেশ