পাতা:আদিশূর ও বল্লালসেন.pdf/৫৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8**。 আদিশূর ও স্বল্লাল সেন। আদিশূর স্বয়ং ক্ষত্রিয় হইলে কখনই আপনাকে অম্বষ্ঠ বলিয়া পরিচয় দিতেন না। উচ্চ জাতীয় ব্যক্তি তদপেক্ষা নীচ হইতে ইচ্ছা করে না এবং ইহার ক্ষত্রিয় সত্ত্বে অম্বষ্ঠ জাতি বলিয়া জনসমাজে প্রথমে পরিজ্ঞাত হইয়া থাকিলে, আদিশূর কি তাহার অধস্তন পুরুষগণ অবশ্যই স্বীয় জাতি মহত্ত্ব অব্যাহত রাখিবার নিমিত্ত ভ্ৰমাত্মক জনরব উন্মলন করিবার চেষ্টা করিতেন, এবং চেষ্টা করিলে অবশ্যই উন্মলন করিতে পারিতেন । ভবিষ্যতে র্তাহাদিগের জাতিসম্বন্ধে পুনরায় এবম্বিধ ভ্রমের আশঙ্কা স্বভাবতঃই উদয় হইত, তন্নিমিত্ত নানাস্থানে জাতির পরিচয় যাহাতে স্থিরতর থাকে তাহার বিধান করিতেন । কিন্তু যে সকল প্রস্তরাঙ্কিত ও তাম্র-ফলক-ঘটিত লিখিত প্রমাণ বিদ্যমান আছে, তাহার কোনটাতেই আপনাদিগের জাতির বিষয় উল্লেখ করিয়া যান নাই, ইহাতেই বোধ হয় যে আদিশূর ও সেনবংশীয় নৃপতিদিগের সময়ে তাহাদিগের জাতি লইয়া কোন গোল হয় নাই । সেনবংশীয়দিগের হস্ত হইতে বঙ্গরাজ্য মুসলমানদিগের অধীনতা স্বীকার করে, প্রচলিত কুলজি গ্রন্থ সকল তৎপূর্ব সময় হইতেই প্রচলিত ছিল, এই সকল কুলজি গ্রন্থে একবাক্যে আদিশূরও বল্লাল অম্বষ্ঠ জাতি অথবা বৈদ্যজাতি স্পষ্টাভিধানে নির্দেশিত আছে, কিম্বদন্তীর সহিত কুলজি গ্রন্থোল্লিখিতের কোন প্রকার বৈষম্য নাই, এবং রাজসাহীর প্রস্তর ফলক এবং বাখরগঞ্জের তাম্রফলকাঙ্কিত শ্লোকেও ইহার ক্ষত্রিয় জাতি উল্লেখ নাই। অতএব আদিশূর এবং বল্লাল সম্বন্ধে কিম্বদন্তী কোন প্রকারেই ভ্রমপূর্ণ হইতে পারে না।