পাতা:আনন্দ রহো.djvu/৬২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ছিল জানি তো, তার ছোট ছোড়া পথে বসে কঁদিছে আর কি বলছে। আমি বলি “আনন্দ রহে ! আনন্দ রহো" ! ! ও বলে আমার আনন্দ কোথা, শুনলেম বড় ছোড়ার জন্য কঁদিছে ; অন্ধকার ঘরের ভিতর আছে জানেন, পাহারাওয়ালার ঘুময় সচ্ছন্দে গেলেই হয় দেখা করে আসে। তাকে খুজি কেন তা জানিস্, এই সকাল হয়েছে তার কাছে যেতে হবে, কোথায় কি দেখেছি বলতে হবে । মান—কাকে বলবে? বেতা—আরে! তুই ন্যাক আর কি, সেই ষে যার ঠেঙ্গে গাজ খাবার পয়স চেয়েছিলাম, তুই দিলি ; সে যেন পাগল, তার ঠেঙ্গে পয়সা চাইলুম একটা কি বার করে দিলে ; আবার একট। আদলে কি দিয়েছে দ্যাক। মান-তোমায় আর কেউ জিজ্ঞাসা করেন এ তাং টী কোথায় পেলে ? বেতা—জিজ্ঞাসা করে আমি বলিনি ; আমি বলি “তোর কি,” সে পাগল ছাগল মানুষ কেউ চিনুগ বা ন চিনুগ। মান—তবে অামায় বল্লে কেম ? বেতা তোর সঙ্গে খুব ভাব আছে তাই বল্লম, আমি সব জায়গায় বেড়িয়ে বেড়াই, তোদের এইখানে আসতে তামায় আরো বলে । হ্যারে সে ছোড়া কোথায় গেল । মন—কোন ছোড়া ? বেত-তুইও পাগল দূর—“আনন্দ রছে ! আনন্দ রহে।” !! ( প্রস্থান ) মান—এ ও তাকবারের চর । ( প্রস্থান ) ( বেস্তালের প্রবেশ ) বেতা-সত্যি, সে ছোড়া কোথায় গেল । দূর হোক আজ গপ কৰ্ত্তে যাবে। তার বলে আসবে, তার রোজ রোজ গপ কৰ্ত্তে