পাতা:আনন্দ রহো.djvu/৭২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


( ছকিমধেশী বেতালকে লইয়। একজন প্রহরীর প্রবেশ ) তাক—এত বিলম্ব হলো কেন ? . প্রছ—উনি গারদ তদারকে গিয়েছিলেন, খুজে খুঁজে সেইখানে । ধরলেস । ( প্রস্থান ) বেতা—(স্বগত) ওর সাক্ষাতে কোন কথা কব না যদি ‘তানন্দ রহে!" বেরিয়ে পড়ে, এও “তানন্দ রহে৷ ” শুনলে ভয় পায় । তাক—(মোড়ক লইয়া হকিমকে প্রদান ) এই ঔষধ লহনার, লহন পাগল হওয়া অবশ্যক—বুঝলে, মানসিংহের পাচকের হাতে এই ঔষধ ( তীর খাবার জন্য নয় ) এই বিষে মানসিংহের প্রাণ সংস্থার | বেতা—ওরে আর থাকতে পারিনি বাবারে, “আনন্দ রছে।” বলি । আক—( মুখের দিকে চাহিয়া ) স্যা এ কাকে এনেছিস্ ? বেতা—“আনন্দ রহে৷” ! ( মৃত্য করিতে ) “আনন্দ রছে" । ૭ ફે বার ‘অননদ রছে।” সয়ে যাবে । আক—একি এ ! ওরে কে আছিস্ রে ধর । ( দুইজন প্রহরীর প্রবেশ, অসি মোচন করিয় ) একি ! মানসিংহ (মুচ্ছ1) ( দুইজন প্রহরী বেতালকে মারিতে উদ্যত, বেতালের সরিয়া যাওন ও আপনাদের অস্ত্রে আপনার পতন ) বেতা—একি সবাই ভয় পেলে, আমি কি করি বাপু, সবাই ভয় পাবে কেবল সেই ছুড়িটে ভয় পায় না, হি: হি: হি:, ছিঃ, সে আমার চেয়ে “আনন্দ রহে|” ! বলে, “আনন্দ রহে ! আনন্দ রছে ! ! আনন্দ রহো" ! ! ! সে যার শুকনে ফুলটাকে বলে “ আনন্দ রছে।" ! হহি। “আনন্দ রহে ! আনন্দ রহে " ! ! না, ন, ন আমি যাই—এরে বলে মুচ্ছৰ্ণ, সেই ছুড়িটে মুচ্ছ গেছলো, আরে সেই যে -যেদিন লুকোতে বলেছিল, তামি যার সে পথ