পাতা:আমার বাল্যকথা - সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৮০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


1V) डां भां ब्र बां ज] क था ব্যবস্থা তার মনঃপূত হল না, তার স্থায়িত্বের প্রতি সন্দিহান হলেন তখন সেখানকার দান উঠিয়ে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে বিজ্ঞান-কলেজ সংস্থাপন উদ্দেশে নূতন দান ব্যবস্থা করলেন--সামান্য দান নয় স্থাবর সম্পত্তি মিলে সাডে সাত লাখ টাকারও উপর । দানপত্রের ‘ব্যবস্থা দু। কথায় এই যে, প্ৰস্তাবিত বিজ্ঞান-কলেজে - পদার্থবিদ্যা ও রসায়নবিদ্যা এই দুই বিদ্যায় দুইটি আসন প্ৰতিষ্ঠিত হবে-এই প্ৰথম । দ্বিতীয়, ইহাও বিশেষরূপে উল্লেখযোগ্য যে এই শিক্ষাকাৰ্যে দেশীয় লোকেরাই অধ্যাপকের পদে নিযুক্ত হবেন। যদি তাদের যোগ্যতা অর্জনের নিমিত্ত বিদেশে শিক্ষালাভ করা আবশ্যক হয় তাহলে এই ব্যবস্থা-পত্রের কর্তৃপক্ষদের বিবেচনায় যাহা ধাৰ্য হয় সেইরূপ শিক্ষা দিবার ব্যবস্থা করা হবে। কিছুদিন পূর্বে এই নিয়মগুলি লিপিবদ্ধ ও দানপত্ৰ গঠিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ে সমৰ্পিত হয়েছিল । সম্প্রতি আবার প্রায় আরও আট লক্ষ টাকার বিষয় তিনি লেখাপড়া করে সেনেটের হাতে সমৰ্পণ করেছেন। এই শুভ কাৰ্য সুসম্পন্ন করে এখন তিনি নিরুদ্বিগ্ন মনে তঁর শেষ দিন প্ৰতীক্ষা করে রয়েছেন, ভূত্য যেমন মাসের শেষে আপনার বেতন প্ৰতীক্ষা করে থাকে৷-“কালমেব প্ৰতীক্ষেত নির্দেশং ভূতকে যথা ।” এই বিরাট দান উপলক্ষে য়ুনিবারসিটির Vice-Chancellor মহোদয় বলেছেন :-“প্রেমচাঁদ রায়চাঁদ, প্ৰসন্নকুমার ঠাকুর, গুরুপ্ৰসন্ন ঘোষ, দ্বারবঙ্গাধিরাজ প্ৰভৃতি মহাত্মাগণ বিশ্ববিদ্যালয়ে লাখো লাখে টাকা দান করিয়া আমাদের গৌরবের পাত্ৰ হইয়াছেন সত্য কিন্তু তারকনাথ পালিত মহাশয় তঁর দুই অসামান্য বদ্যান্যতাগুণে আর সকলকে পরাস্ত করিয়া এই দাতৃমণ্ডলীর শীর্ষস্থানীয় হইয়া द्रब्लिन्न ?? ছেলেবেলা থেকেই তারকনাথ পালিত তেজস্বী, এইখানে তঁর বাল্যকালের তেজস্বিতার একটি পরিচয় প্ৰদান করি। আমরা দুই বন্ধু প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে মেডিকেল কলেজে কেমেষ্ট্রর লেকচার