পাতা:আমি অমল আধারে.pdf/১৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আর এ ক টি ডোর হলে আর একটি ভোর হলে গান গাইবো তোমাদের মাঝে । আপাতত প্রাজ্ঞ সব প্যাঁচাদের মুক্ত শীৎকারে অন্ধকার আন্দোলিত। অসহায় চ,দ আলোর অচিলে তার নগ্ন বক ঢাকে। কতোবার ভেবেছি যে ফিরে যাবো কোনো পথ দিয়ে, সে দেশ দেখিনি আমি, সে দেশ সবনের মতো আজ কিছুটা সমতিতে তার কিছ আরোপিত কল্পনায় আলোর আবেশ নিয়ে কতদরে আজো জেগে আছে। আর এ শহর জুড়ে উচ্চশির গবিত প্রাসাদ, পথ কোথা খুজে পাবো, অগণন পথের জটিলে সহসা হারায় পথ। চোখে পড়ে স্তিমিত আলোয় বিবস্ত্রা নারীর মতো পড়ে আছে হৃদয়ের দেহ, কারা যেন ঘোরে ফেরে ব্যস্ততায়, বকের লোহায় সব কিছ পিযে দলে সহজ উল্লাসে সতব্ধ করে সতবধ করে চোখের সবচ্ছতা, এবং লতিজত চাঁদ-গাছ-পালা-সমুদ্র-আকাশ। প্রকৃষ্ট কতকাল যতো ভিড় করে ভীর রিক্ততায়, স্বরগুলি নিঃস্ব হয়ে উচ্চারিত ভঙ্গর হাসিতে, কোথায় লুকিয়ে আছে নরনারী নন্দিত নিঃশ্বাসে, কোথায় হারায় সব গাঢ় আন্দোলিত অন্ধকারে। এ শহর ভেঙে গেলে অলক্ত আকাশে সহাসা বাতাস এসে মাছে দিলে গন্ধ অাঁধারের আবার সফরিত হবে গান সেই সবচ্ছতায় আলোর প্রবাহে। ১৭৯