পাতা:আমি অমল আধারে.pdf/৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


छानि ना का रुजा वा ना জানিনা কতদরে রয়েছ তুমি আজ সেখানে যেতে আমি পারবো কি, আকাশে ইদানীং বিশেষ কিছ নেই রঙের ঝিলিমিলি আলপনা তাহলে দইচোখে গাছের মগনতা শিশর ঘন্ম আমি কাড়বো কি, অন্ধকারে কতো নীরব থাকা যায়, কি আর ভাষা দেয় কলপনা। আমার কিছু নেই ছিল না কোনোদিন, শ্ধ এ পথিবীর নিত্যতা নিয়েছি দুইহাতে যেমন আজো নিই বকের নিঃশ্বাস অহরহ, অর্থহীন লাগে সমপিত সব বিফল অকারণ লিপ্ততা; বঝিনি শান্যতা এমন ধারালো যে, রক্তে ভেসে যাই কি অসহ। বনগলি সেই ঝরাপাতার মতো কেবলি ঝরে যায় অজান্তে...... আমার পৌর্য ক্ষম বলে যারা চেনেনি যৌবন আজো তারা। চিনেছি যৌবন, চিনিনি ভালোবাসা, পাবো কি জীবনের নিশান্তে; এখন ঘনঘোর অন্ধকারে ধ ধ অন্ধকার শধে তোলে সাড়া। বঝি অপরিমিত অভর ব্যবধান রয়েছে পথিবীর বকে জড়ে, জানিনা ভালোবাসা আলো দেখায় কিনা, নাকি সে অাঁধারেই দেয় ছাড়ে। ይህ