পাতা:আমি শুধু একা - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১৪৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নয়। তাছাড়া এতদিন পটল এসব ব্যবসা করছে, আজই পুলিশের হামলা হয়েছে, অর্থাৎ কোন গোপন সূত্রে কোন খবর বের হয়ে গেছে হয়তো। এসময় বসন্তবাবু চলে যাবার কথাটায় সে অনেকখানি গুরুত্ব দেয়। বসন্তবাবুর কথায় পটল ওই রাগ ভাবনাগুলোকে চেপে রেখে সহজভাবে হাসবার চেষ্টা করে বলে । —টাকার দরকার থাকে নিয়ে যান। বাসস্তবাবু আজি সব অভাব আর প্রলোভনকেও জয় করেছেন মুক্তির আশায়। তাই বলেন । --টাকার দরকার নেই। বাবা। পটল চমকে ওঠে ওঁর কথায়। তীক্ষ দৃষ্টিতে দেখছে বুড়োকে। পটলের মনে হয় টাকা দেবার লোক আজ অন্য কেউ জুটেছে। তারই চাপে পড়ে বসস্তবাবু এখান থেকে চলে গিয়ে এইসব গোপন খবর ফাস করে দেবে। পটলকে চরম বিপদে ফেলবে ওই বুড়ো । পটল তবু শোনায়। --কিছু অসুবিধা হচ্ছে কি এখানে ? বৃদ্ধ জানায়। —না। এ কাজ আর পারবো না পটল । বয়স হয়েছে। পটল ওসব কথা বিশ্বাস করে না। ওর মনে হয়। বুড়ো এই সব বলে এখান থেকে সরে যেতে চাইছে। পটল বলে । --ছেড়ে দেবেন। চাকরী এক কথায় ? ওদিকে ঘর সংসার রয়েছে। ছেলে মেয়েদেরও চাকরী-বাকরী হয় নি। তবু বাসস্তবাবু বলেন। -ওদের কথা এইবার ওরা ভাবুকগে, আমি আর পারবো না। তাই নিষ্কৃতি চাইছি। পটল । পটল চুপ করে কি ভাবছে। বুড়োকে টাকা দিয়েও বাগ মানানো যায় নি। ওদিকে পুলিশের নজর পড়েছে। S 8V