পাতা:আমেরিকার নিগ্রো - রামনাথ বিশ্বাস.pdf/১৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মনুষ্যত্ব লাভ 17 . আমাদের মনিবের স্ত্রী এখনও যুবতী। তার ঘরে এখনও অনেক নিগ্রো চাকর। যুবকের সংখ্যাই বেশি। আমাদের কর্তার স্ত্রী এদের খুবই ভালবাসেন। ভালবাসা অন্তরের, ঘৃণা বাইরের। যদি সামাজিক প্রতিবন্ধক না থাকত তবে আমাদেরই একটি ছেলেকে নিয়ে ঘরকন্না করতেন। সমাজ তাকে বাধা দিচ্ছে সে জন্যই তােমার মত ছেলেকে অন্তরের সহিত ভালবেসেও বাইরে পথের কুকুরের মত ঘৃণা করেন। | আজ অনেক কথা হয়ে গেল, এখনই কাজে যেতে হবে। ঐ দেখ পশ্চিম আকাশ কালাে হয়ে উঠছে, বাদল নামার পুর্বে যদি বাকি তামাক কাটা না হয় তবে মনিবের অনেক ক্ষতি হবে। এন্তনী যেন ঘরেই থাকে। তার দুটো বােন শেতকায়দের সংগে গােপনে নাচবে, হয়ত পাশের ঘরেই আড্ডা করবে, তুমি কিন্তু সেদিকে যেয়ে । তােমাকে দেখলেই মনিবের দল রেগে যায়। | এই বলেই মা বেরিয়ে গেলেন, এনী ঘরে ঢুকল, নূতন এক খানা বই হাতে করে। এবার সে প্রকাশ্যেই বই পড়ে। মনিব তাকে কিছু বলেন না। বইএর পাতাগুলি বেশ সুন্দর। জর্জ ওয়াশিংটন আমেরিকার জন্য যে কষ্টিটিউসন তৈরী করেছিলেন এটা সে বই। এনতনী ঘরে ঢুকেই বললে, “আজ তােমাকে নূতন কথা শুনাব। তুমি বলছিলে উত্তরে চলে যাবে। উত্তরে যাওয়া এবং দক্ষিণে থাকা একই কথা। এই দেখ, জর্জ ওয়াশিংটন বলেছেন আমেরিকা শ্বেতকায় এবং কৃষ্ণকায়দের বাসভূমি। আমরা আমাদের বাসভূমি পরিত্যাগ করে। ইয়াংকীদের দেশে যাব সে কেমন কথা? আমাদের যদি লিঞ্চ করে করুক, আমরা এখানে জন্মেছি এখানেই মরব, কিন্তু মরার পূর্বে দেখব, অন্তত, দেখার চেষ্টা করব ভবিষ্যতে যাতে লিঞ্চ আর না হয়। শােনো