পাতা:আমেরিকার নিগ্রো - রামনাথ বিশ্বাস.pdf/৩৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


। । উইলী ৩১ হল। যদি হারামের ঠিকানা দিতাম তবে ম্যানেজার আমার নামে নিশ্চয়ই অনধিকার প্রবেশের জন্য মােমা রুজু করতেন। দোকান হতে বের হয়ে আসার সময় কয়েকজন লােক নবনিযুক্ত সেলসম্যানদের প্রতি লক্ষ্য করে গুথু ফেলে বলছিল, “এই বিশ্বাসঘাতকেরাই আমাদের অঙ্গ কেড়ে নিচ্ছে, এরা জাহান্নামে যাক।” কেন যে এরূপ বল তা একটুও ধারণা করতে পারলাম না, অথচ আমিই নিগ্রোদের মধ্যে যাতে “সি, আই, ও” গড়ে ওঠে, তার একজন পাণ্ডা ছিলাম। বাসে বসবার পরই মনে হল হয়ত এখানকার কর্মীরা মাইনে বৃদ্ধির জন্য ধর্মঘট করেছিল। তারপরই আবার সব ভুলে গেলাম, আমাকে শ্বেতকায় হবার লোভে পেয়েছিল। টেভ ইউনিয়ন, অপরের অন্ন কেড়ে নেওয়া, এসব চিন্তা আমার মনে স্থান পাচ্ছিল না। রাতে মায়ের সঙ্গে যখন দেখা হল তখন তার কাছে চাকরি পাওয়ার কথা : পরই যখন বললাম, সেলসম্যানরা ধর্মঘট করার জন্যই চাকরি পেয়েছি। তখন মা আমার রুম পরিত্যাগ করলেন এবং একটি কথাও বললেন না, কিন্তু তার লাল মুখ সাদা হয়েছিল, সেটাই লক্ষ্য করেছিলাম। কতক্ষণ পর পুনরায় মা আমার ঘরে আসলেন এবং বললেন, তুমি শ্বেতকায় হবার জন্য চেষ্টা করছ। খেতকায় হবার পূর্বে তাদের মত উন্নত হবার চেষ্টা কর। তােমাদের মধ্যে যত জন আজ চাকরিতে যােগ দিয়েছ সকলেই বর্ডার লাইনার, একজনও শ্বেতকায় নয়। অনুসন্ধান করে দেখো আমার কথা ঠিক কি না। পরের দিন থেকে কাজ করে চললাম। মা যা বলেছিলেন, যদিও অনেকবারই মনে হয়েছিল তবুও অনুসন্ধান করার প্রবৃত্তি হয় নি। সপ্তাহে একুশ ভলার মাইনে একজন নিগ্রো কল্পনাও করতে পারে না।' - 1 = | 1 1 । . - - - । । ।