পাতা:আমেরিকার নিগ্রো - রামনাথ বিশ্বাস.pdf/৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উইলী মারবে। সেজন্য বললাম আমি ত আমেরিকান রূপে চাকরি পাইনি। আমার জন্ম হারলামে, এই এক মাত্র অধিকারে চাকরিতে ঢুকেছিলাম। আমার জাত যে কি আমিও জানি না, হুজুরের ইচ্ছামত আমার জাত নির্ণয় করুন। | এর পর আর কিছুই বলতে পারি না। যখন জ্ঞান হল তখন দেখলাম আমি একটি নিগ্রো হাসপাতালে শুয়ে আছি। শরীরে খুবই ব্যথা ; এক গ্লাস জল চাইলাম। নিগ্রো নার্স এক গ্লাস জল আমার মুখে ধীরে ধীরে ঢেলে দেবার সময় বললেন, “দাড়কাক হয়ে ময়ুরপুচ্ছ পরলে যা হয় তােমার তাই হয়েছে। আমরা তােমাকে ঘৃণা করব না, সেবা করতেও কসুর করব না। তুমি সত্বরই আরাম হবে। জল খেয়ে চোখ বুজতে যাচ্ছি অমনি সময় এক জন আমেরিকা ডাক্তার সিরিঞ্জ হাতে করে আমারই দিকে আসছিল। লােকটাকে দেখেই যমের অগ্রদূত মনে হল। তবুও ইনজেকসন্ নিলাম। উপায় নেই। হারলামে জন্মেছি, সঠিক আমেরিকা হয়ে জন্মাতে পারিনি সেজন্য আমেরিকা নিগ্রো হতেও আমাদের বেশি ঘৃণা করে। এর পরে যখন জ্ঞান হল তখন আমি আমার মায়ের কাছে ছিলাম। মা আমাকে নিজের ঘরে নিয়ে এসেছিলেন, কারণ তিনি জানতেন আমার মত অনেক বর্ডার লাইনারকে আমেরিকান ডাক্তাররা হত্যা আরম্ভ করেছিল। | আমার চিকিৎসা করতেন এক জন ইষ্ট ইণ্ডিয়া। তিনিও অর্ধ নিগ্রো। তার মা ছিলেন নিগ্রানী। কিন্তু তাঁর পিতা ইণ্ডিয়া হতে তাকে ডাক্তারী পাশ করিয়ে এনে আমেরিকাতে নিগ্রোদের সাহায্যে পাঠিয়েছিলেন। সেই ইষ্ট ইণ্ডিয়া ডাক্তারের দয়ায় ছয় মাস পর অনেকটা আরাম হয়েছিলাম। তারপর আরও ছয় মাস বিশ্রাম করি।