পাতা:আমেরিকার নিগ্রো - রামনাথ বিশ্বাস.pdf/৭২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৮ আমেরিকার নিগ্রো উইলী নিকলাইকে জিজ্ঞেস করল, কোন পরিচয়পত্র দেবে না। নিকলাই ? পরিচয় পত্ৰ আমি দিতাম কিন্তু দেব না, তুমি যে পােষাকে বের হয়েছ সেটা হল রাজপুত্রের পােষাক। পরিচয় পত্র পেতে হলে আমার দেওয়া পােষাক পরে তােমাকে বের হতে হবে। তােমার পােষাক এবং কাজে সামঞ্জস্য থাকা চাই। নিয়ে এসে তােমার পােষাক, আমার দেরী সহ হচ্ছে না। এসব বাজে কথা বকো না, দেরী বলে কোন কথা আমার অভিধানে আপাতত নেই। সিনেমার হানিমুনে বের হচ্ছ না। বের হচ্ছ এতবড় একটি রাষ্ট্র উৎখাত করার জন্য। এতে সকাল বিকাল নেই। উদ্দেশ্য নিয়ে সারা জীবন কাজ করেও হয়ত দেখতে পাবে কিছুই করতে পারনি, তা বলে হাল ছেড়ে দিলে চলবে না, কঠোর ভাবে নিয়ম মত কাজ করতে হবে। উইলী আমেরিকা। প্রেস রিপাের্টারের দেশে তার জন্ম। লােক ঠকিয়ে লােক বড়লােক হয়। সে দেশে যে কোন কাজ তাড়াতাড়ি করা স্বাভাবিক। নিকলাই অন্য রুম হতে দুটো সুট নিয়ে এলেন এবং উইলীকে বললেন, “দেখত ঠিক হয় কি না?” | সার্ট এবং দুটো সুটই থার্ড হ্যাও কি ফোর্থ হ্যাণ্ড হবে। টান পড়লেই ছিড়ে যাবে। দু একটা রিপু করা টাকও ছিল। টাকগুলি ভিন্ন কাপড়ের ছিল এবং বেশ পরিষ্কার ভাবেই দেখা যাচ্ছিল। উইলী একটি সার্ট এবং সুট পড়ল, তারপর বললে, এ সুট ত তিন দিনও চলবে না। | ভাল করে সুটটা পর, তারপর মেজের ওপর বস, এবং সুটটাকে ছিড়বার চেষ্টা করত।