পাতা:আমেরিকার নিগ্রো - রামনাথ বিশ্বাস.pdf/৮০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


| ? ” আমেরিকার নিগ্রো | আমি ত একে নিয়ে আসিনি, এতনীই আমাকে নিয়ে এসেছে, সেই তার কথা বলবে। আমি এখন পথিক মাত্র। উইলী বলে, “জুফ্রে আর সময় কাটানো চলে না, অতি সত্বর আমাদের সাপ্তাহিক বের করতে হবে। তুমি সম্পাদক হবে, আমরা তােমার সহকারী হব। আমরা না হই অন্যান্য আরও শ্বেতকায় আছে যাদের সাহায্যে কাজ চালানাে যেতে পারে।” | দীর্ঘ নিঃশ্বাস ত্যাগ করে জুফ্রে বললে, “দেখ না আমি রুটির ব্যবসায়ী, যদি ডলার থাকত তবে আজই সংবাদ পত্র খুলে দিতাম। আর কিছু না পারতাম তােমার বােনদের প্রতি যে অত্যাচার হচ্ছে তাই ছাপিয়ে যদি পৃথিবীর লাইবেরীগুলিতে পাঠিয়ে দিতে পারতাম তবেই অনেক কিছু হত। সংবাদ পত্রের কত দরকার তােমরা বুঝবে না, আমি বুঝি। এই লােকটির পােষাক রেশমের, এর কাছ থেকে কিছু পাওয়া যেতে পারে।” | আমার পােষাক রেশমের কে বলেছে তােমাকে, দেখছে না কত নিপু করা তবুও বলছ রেশমের। হাঁ মসিয়ে যা বলছি সবই ঠিক, তবে ডলার নাও থাকতে পারে তােমার কাছে। আমি কিন্তু এসব কুৎসিত কথা প্রচার করতে ভালবাসি না, এতে আমাদের ইজ্জত থাকবে না। ইজ্জত যা আছে সকলেই জানে, “এ ব্লাডি নিগার ইজ নাথিং বাট এ নিগার” এর বেশি সম্মান তােমাদের কি আছে? যাদের একটু সাধারণ জ্ঞান আছে তারাই জানে নিগ্রোদের বাহাদুরী কত। টাকা নেই সে কথা বলতে ইচ্ছা হয় না, যেন মরক্কোর সুলতান। নেই শব্দটিই ডিক্সনারীতে নেই। নিগ্রোদের আবার মান ইজ্জত কি?