পাতা:আমেরিকার নিগ্রো - রামনাথ বিশ্বাস.pdf/৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মনুষ্যত্ব লাভ পেয়ে থাকি। উরু দুটো কিন্তু মানুষের মতই, বেশ মােটা। প্রত্যেকটা উরু কোমরের মতই মােটা। এ দুটোর দিকে অনেকে চেয়ে থাকে। কেন চেয়ে থাকে বলতে পারি না। আমেরিকা পুরুষদের কি আমার মত উরু নেই—আছে নিশ্চয়ই, তবুও তাকায় “কেন? | ছােটবেলায় কখনো জুতো ব্যবহার করতাম না, এমন কি আঠার বৎসর পর্যন্ত ব্যবহার করিনি। এবার থেকে জুতো এবং ষ্টকিং ব্যবহার করতে আরম্ভ করেছি, এটা নাকি আমেরিকান পদ্ধতি। তা বলে নূতন জুতো ব্যবহার করার সৌভাগ্য হয় নি। থার্ড হাণ্ড এক জোড়া জুতাে পঞ্চাশ সেন্ট দিয়ে কিনেছিলাম। উল-.. ওয়ার্থে দশ সেন্টে ষ্টকিং পাওয়া যায়। মােট ৬০ সেন্ট খরচ করে কিশাের হতে যৌবনে পদার্পণ করি। | পরণের সুটের দাম ৬০ সেন্ট থার্ড হ্যাণ্ড হওয়া খুবই সম্ভব। এক ইহুদী অল্পমূল্যে বিক্রী করেছিল। ইহুদীরা আমাদের প্রতি বেশ দা করে, তাদের সামাজিক অবস্থা আমাদের চেয়ে ঢের ভাল, কিন্তু আমেরিকানদের কাছ থেকে সমব্যবহার পায় না। তাই হয়েছে, আমাদের প্রতি বেশ দয়া দেখায়। স্নান মাসের মধ্যে একদিন হয় কি না সন্দেহ। শরীরে উকুন রয়েছে বেশ বুঝতে পারি, তবুও শরীরটা পরিষ্কার দেখায়। এটা বােধ হয় যৌবনের লক্ষণ। অনেকে বলে, আমার যৌবন কানায় কানায় পৌছেছে। আমার কিন্তু সেরকম কিছুই মনে হয় না। | হ্যা, আমার আর একটি শত্রু আছে। সেটা হল দুপাটি দাত। একটার সংগে পাল্লা দিয়ে অন্যটা সুন্দর দেখায়। কয়েকটি ডলার