পাতা:আয়ুর্ব্বেদ সারসংগ্রহম্‌ - তৃতীয় ভাগ.pdf/৮৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* о আয়ুৰ্ব্বেদ সারসংগ্ৰহম্। যষ্ঠমধু, আদা, শোনাবৃক্ষের ছাল এই তিন দ্রব্য, ভণ্ডল জলেও মধু দিয়া শিলাতে পিষিয়া ধুই আনা পরিমাণে বট করিবে ঐ বটা ১ট তণ্ডুল জল ও মধুর সহিত ৩ ঘণ্ট। অন্তর রোগীকে ১টা বট খাওয়াই লে রোগী পকাতিসার ব্যাধি হইতে মুক্ত হইবে । এই যে চারি যোগ কহিলাম ষ্টহীরা তণ্ডল জলও মধুর সহিত প্রযোজ্য হইলে পঙ্কতি সরিকে নাশ করে । ৩০ লোথাম্বষ্ঠা প্রিয়ম্বাদীন গণান্নব প্রযে{জয়েৎ || ৩১ মুগা ২ তোলা লইয়া শিলাতে ছে চিয় জর্জ সের জলেতে সিদ্ধ করিয়া তাদ্ধ পেয়ে থাকিতে নাবণইয়। পরে উছা মধুর সহিত মিলিত করিবে তদনন্তর ইহা অৰ্দ্ধ ছটাক লইয়া রোগিকে দুই ঘণ্টা স্তর আট বরেতে পান করাই লে রোগী পঙ্কতি সার হইতে মুক্ত হয় । লেtধ কৃষ্টি, সাবরলোধ, পলাশ, মুপা, অশোক, বামুনহাটী, কটফল, এলবালুক, কু দরুকী, মঞ্জিষ্ঠ), কদম্বজাতী ও কদলীবৃক্ষ ই তাকে রে ধ্রুদিগণ কহে এই রেপ্রিাদিগুণককে যথা লাভে ক{থ বা চুৰ্ণ করিয়া খাইলে পকাতিসার নাশ হয় । আকনাদী, ধাইফুল, বরাহ ক্রস্তা, শোণরক্ষ, যষ্টীমধু, বেলেরশাস, লোধ, সাবরলে।ধ পলাশ, নদীবৃক্ষ, পদ্মকেশর — এই কয়েকটিকে অম্বষ্টুদিগণ কহে ইহ দিগের মধ্যে