পাতা:আরোগ্য - মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ডাক্তার দত্তের কাছ থেকে অন্তত বর্তমান পরিবেশটি থেকে সরে থাকবার উপদেশ পেয়ে চন্দননগরে মামার বাড়ী কিছুদিন থাকতে গিয়েছিল । দু’তিনটে দিন একটু ভাল লাগল, তারপরেই যেন হু হু করে চড়ে গেল রোগের সবগুলি লক্ষণ । পালিয়ে আসতে হল বোস পাড়ায় কলকাতা সহরে । নূতন কাজ পেয়েছিল । রাজেনবাবু নামে একজন ব্যবসাদারের গাড়ী চালাবার কাজ। অনেক ঘোরাফেরা করতে হয় বলে মাইনে ছিল उछब्न । অনিমেষের লোক জুটছিল না, অল্প পয়সায় শুধু অপিসে পেঁৗছে দেবার লোক পাওয়া শক্ত ৷ প্ৰতিবেশী বীরেশ গাড়ী। কিনলে তার সঙ্গে ব্যবস্থা করে আনিমেষ বলতেই বেণী মাইনের চাকরীটা ছেড়ে দিয়ে বীরেশের কম মাইনের কাজে সে ঢুকে পড়েছে। টাকার এত টানাটানি তবু বেশী টাকার কাজটা সে ছেড়ে দিল -ওই কাজের অসুবিধার জন্য অসুখটা বেড়ে গিয়েছিল বলেরাজেনের কাজে ছুটি পেয়ে বাড়ী ফিরতে বড় বেশী রাত হয় যেত বলে এবং বীরেশর বাড়ীটা ললনাদের বাড়ীর খুব কাছে বলে । অসুখ কি সারবে না ? ডাক্তার দত্তকে চিন্তিত দেখায় ।

তুমি গলদটা নিশ্চয় বুঝতে পারিছ না । তোমার ভুল ধারণার ঠিক কোনটা ভুল, আর কেন ভুল ধরতে পারিছ না।
পারছি বৈকি। সার। এমন জলের মত করে বুঝিয়ে দিচ্ছেন তারপরেও বুঝতে বাকী থাকে ?

Sw8