প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/১২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৈশাখ ১২৮২ । বিবাহেই বর ও কন্যার যুব ও যুবতী হওয়া আবশ্যক। নতুবা–বরও কন্যার পরস্পরের প্রতি অনুরক্ত হইবার সম্ভাবুন নাই। প্রাজাপত্য ও গান্ধৰ্ব্ব বিবাহ প্রায় একই রূপ। উভয়েতেই বর ও কন্যার পরস্পরের প্রতি অনুরাগ থাকা প্রথম প্রয়োজনীয়। তবে এই মাত্র প্রভেদ যে প্রাজাপত্য বিবাহ পিতা মাতা বা অভিভাবগণের অনুমোদন সাপেক্ষ এবং গান্ধৰ্ব্ব্যবিবাহ পিতা মাতা বা অভিভাবকগণের অনুমোদন-নিরপেক্ষ । এই বিবাহদ্বয়ের পুনঃ প্ৰবৰ্ত্তন৷ অতীব প্রয়োজনীয়। মনু প্রাজাপত্য ও গান্ধৰ্ব্ববিবাহকে বিধিবদ্ধ করিয়া বিবাহে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়াছেন বটে, কিন্তু তিনি মনোনীত করণে ভ্রম প্রমাদাদি নিরাকরণ জন্য অবিশৃঙ্খলিত বিয়োজন প্রথার প্রবর্তন করেন নাই। বিবাহু তাহার মতে চিরস্থায়ী। একবার প্রজাপতি কর্তৃক পতি ও পত্নী সম্বন্ধ সংঘটিত হইলে, বিক্রয় ও ত্যাগেও সে সম্বন্ধ বিচ্ছিন্ন হইবার নহে (১)। তাহার বিধানানুসারে স্ত্রী বন্ধ্যা হইলে, বা দশবর্ষ পর্য্যন্ত মৃতপ্রজা হইলে, বা একাদশ বর্ষ পর্য্যন্ত স্ত্রীজননী হইলে, অথবা অপ্রিয়বাদিনী হইলে স্বামী তাহাকে তৎক্ষণাৎ পরিত্যাগ করিতে (১) ন নি বিসর্গাভ্যাং ভর্তু ভাৰ্য্য - - বিমুচ্যতে। এবং ধৰ্ম্মং বিজ্ঞানীম প্রাকৃপ্রজাপতি, - . . . . . নিৰ্ম্মিতম ॥৯৪৬ বিবাহ ও পুত্রত্ব বিষয়ে মনুর মত। গুণবিহীন (t | পারেন বটে (২) কিন্তু স্বামী সদাচারবিহীন, অন্য স্ত্রীতে অনুরক্ত, বা বিদ্যাদিহইলেও স্ত্রীর তাহাকে সতত দেবতার ন্যায় সেবা করিতেই হইবে (৩)। স্ত্রীর কিছুতেই নিস্তার নাই, পতি র্তাহাকে পরিত্যাগ করুন বা ভাৰ্য্যাস্তর গ্রহণ করুন, স্ত্রীকে আজীবন তদনুধ্যান করিতেই হইবে । ইহাতেও স্ত্রীর যন্ত্রণার অবসান হইবে না। পতি প্রেত হইলেও স্ত্রী পুষ্পমূল ফলাদি দ্বারা বরং দেহের ক্ষপণ করিবেন, তথাপি পরপুরুষের নাম পৰ্য্যন্ত গ্রহণ করিতে পারিবেন না (৪)। ময় যদি কম্টের ন্যায় স্ত্রী ও পুরুষউভয় জাতির পক্ষে আজীবন এক বিবাহ ব্ৰত প্রতিপালনের ব্যবস্থা দিতেন, তাহা হইলে আমরা তাহার উপর দোষারোপ করিতে পারিতাম না। কিন্তু তিনি যখন স্বামীর হস্তে অপ্রিয়বাদিত্বরূপ সামান্য অপরাধেও এক ভাৰ্য্যা পরিত্যাগ করিয়া ভাৰ্য্যান্তর গ্রহণের অধিকার প্রদান করিয়াছেন, তখন ভাৰ্য্যাকে স্বামী বিষয়ে আজীবন (২) বন্ধাষ্টমেংধিবেদ্যান্ধে দশমেতু

  • মৃতপ্রজা। স্ত্ৰীজননী সদ্যস্তৃপ্রিয়বাদিনী

||*|br> (৩) বিশালঃ কামবৃত্তো বা গুণৈর্ব। পরিবজ্জিত: | উপচৰ্য্যঃ স্ক্রিয়া সাধব্য সততং দেববৎ

' পতিঃ ॥৫১৫৪ |

একাদশে