প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/১৪৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


| ১৩৬ আর্য্যদর্শন | श्रांशांक्ले ১২৮২ | s সাধারণ ক্ষমতা লাভ করিতে পারা যায় তাহ সবিস্তরে বর্ণিত হইয়াছে। চতুর্থ 1কৈবল্য অর্থাৎ ঈশ্বরভাবনার বিষয় লিখিত হইয়াছে। পতঞ্জলিংপ্রণীত যোগশাস্ত্রের উপরও অনেকগুলি টীকা রচিত হইয়াছিল। এই টীকার নাম পাতঞ্জলভাষ্য। ইহা মহর্ষি বেদব্যাস বিরচিত বলিয়া প্রসিদ্ধ | আছে। বাচস্পতিমিশ্র পাতঞ্জলস্বত্র ও রচনা করিয়াছেন । বিজ্ঞানভিক্ষু অপর নিজ টীকায় পতঞ্জলিগ্রণীত মূলগ্রন্থকে যোগবাৰ্ত্তিক এইনামে নিদেশ করিয়াছেন। মহারাষ্ট্রনিবাসী নাগোজী ভট্ট উপাধ্যায় অপর একখানি রচনা করিয়াছেন। এই টীকাখানি পাতঞ্জলস্বত্র নামে অভিহিত। কপিলপ্রণীত সাংখ্যদর্শনে ঈশ্বরের অস্তিত্ব নিরাকৃত হইয়াছে, এই জন্য উছার নাম নিরীশ্বরদর্শন। আর পাতঞ্জলদর্শনে ঈশ্বরের অস্তিত্ব সংস্থাপিত হইয়াছে বলিয়৷ উহার নাম সেশ্বরসাংখ্য। এই বিষয়টী ভিন্ন কপিল ও পতঞ্জলিউভয়প্রণীতদর্শনের অন্যান্য সকল বিষয়েই প্রায় সম্পূর্ণ ঐকমত্য দেখিতে পাওয়া যায়। কপিলদশনের ন্যায় জিন ও বুদ্ধ প্রণীত দর্শনেও ঈশ্বরের अखिक अशैक्लड इईग्रांटझ् ।। ५हे ठिन | প্রকার দশ নেই ঐশ্বৰ্য্যাদিসম্পন্ন সিদ্ধ | পুরুষদিগকে ঈশ্বরোচিত ভক্তি প্রদশিত হইয়াছে। কিন্তু অন্যান্য পার্থিব পদার্থের ন্যায় এই সকল দেবতারাও উৎপত্তি ও বিনাশের অধীন। • • প্রায় সকল মতই অনুসরণ করিয়া থাকেন। পাতঞ্জলভাষ্য এই উভয়ের উপরেই টীকা | এক খানি টীকার রচয়িত। বিজ্ঞানভিক্ষু | উদ্দেশ্য—কি উপায়ে দেহ বিসর্জনের পর । কপিল ও পতঞ্জলি এই উভয় কর্তৃক | উদ্ভাবিত সাংখ্য ব্যতীত আর একপ্রকার । দশনের নামও পৌরাণিক সাংখ্য কহে। পৌরাণিক সাং খাদিণের মতে সমুদয় প্রকৃতিই মায়াময় | এবং ভ্রমমাত্র। পৌরাণিক সাংখ্যের কপিল ও পতঞ্জলি উভয়প্রণীত দশনের মৎস্য কূৰ্ম্ম বিষ্ণু প্রভৃতি কয়েকটী পুরাণে এই মতের পরিপুষ্ট আছে। প্রকৃতি ও অন্য চতুৰ্ব্বিংশতিতত্ব (মূল পদার্থ) প্রভৃতির সংখ্যা বিশেষরূপে নিৰ্দ্ধারণপূর্বক বর্ণিত হইয়াছে বলিয়া এই দর্শনের সাংখ্যদর্শন এই যোগরূঢ় নাম হইয়াছে। এই অংশে গ্ৰীসদেশীয় পাইথাগোরসের উদ্ভাবিত দর্শনের সহিত সাংখ্য দর্শনের কিঞ্চিৎ সাদৃশ্য লক্ষিত হয়। টীকাকারের সাংখ্যসংজ্ঞার উক্তরূপ ব্যাখ্যা করিয়া থাকেন। ৪ বিচারমার্গপ্রহিতমনে আত্মতত্ত্ব নিরূপণ করা সংখ্যা শব্দের তাৎ পৰ্য্যাৰ্থ, বিজ্ঞানভিক্ষু নিম্নোদ্ধত শ্লোকের এইরূপ ব্যাখ্যা করিয়াছেন। কি সাংখ্য, কি যোগ, কি ন্যায়, কি বেদান্ত যাবতীয় প্রকার দশনেরই চরম নিশ্রেয়স অর্থাৎ মুক্তিলাভ হইতে পারে

  • সংখ্যাং প্রকুৰ্ব্বতে চৈব প্রকৃতিঞ্চ

ংখ্যদর্শন। ইহাকে | , 間島。 তত্ত্বানি চ চতুৰ্ব্বিংশং তেন সাংখ্যাঃ , প্রকীৰ্ত্তিতাঃ ॥ |