প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৩১০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


| কাৰ্ত্তিক ১২৮২ । হইবে । অঙ্গভঙ্গির সমুদায় লক্ষণ বিবৃত্ত করিতে গেলে একখানি বৃহৎ গ্রন্থ হইয়া পড়ে। তবে টলী • কণ্ঠধ্বনির যে কতিপয় | ਸੱਜ সুত্র প্রদান করিয়াছেন তাহা ক্রমশ: প্রদর্শন করা যাইতেছে। মানব ক্রোধপরবশ হইলে তাহার কণ্ঠরব অতি উচ্চ, কর্কশ, এবং চড় হয়, বাক্য সকল দ্রুতগামী হইয়া পড়ে। ভারতচন্দ্র কোটালের শাসন স্থলে রাজার উক্তিতে কহেন :–

  • নিমক হারাম বেটা

আজি ব’াচাইবে কেটা, দেখিধি করিব যেই হাল ॥ রাজ্য কৈলি ছার খার, তল্লাস কে করে তার, পাত্র মিত্ৰ গোবর গণেশ । আপনি ডাকাতি করি, প্রজার সৰ্ব্বস্ব হরি, * হয়েছিস দ্বিতীয় ধনেশ ॥ লুটলি সকল দেশ, মোর পুরী ছিল শেষ, তাহে চুরি করিলি আরম্ভ। জানবাছা এক থাদে, গাড়িব হারামজাদে, তবে সে জানিবি মোর দম্ভ । তোর জিন্ম মোর পুরী, বিদ্যার মন্দিরে চুরি, কি কহিব কহিতে সবম। মাতালে কোটালি দিয়া, পাইকু আপন কিয়া, দুর গেল ধরম ভরম ৷ ” Tully. নাটকাভিনয় । -- २:४१ বাক্য অতি মুছ্‌, ধীর, থাকিয়া থাকিয়া কম্পিত রবে উচ্চারিত হয়। কারডিনাল উলসী রাজ্যের উচ্চতম পদ হইতে নিপতিত হইয়া যে প্রকার শোচনীয় বাক্যে দুঃখ প্রকাশ করিয়াছিলেন, নাটককারচূড়ামণি সেকসপিয়ার তাহা একটি চমৎকার স্বগতবাক্যে বিরচন করিয়াছেন। “গৌরব ! সম্পদ! তোমাদের নিকট আমি বিদায় হইলাম। চিরকালের জন্য বিদায় হইলাম । মানবের এইরূপ অদৃষ্ট! আজি তিনি আশার নবপল্লবে শোভিত ছন, কালি তাহার আশাবৃক্ষ মুকুলিত হয়, সহস্র সম্পদের ফলভরে অবনত হইয়া পড়ে, পরশ্ব কোথা হইতে দিকব্যাপী কুজঙ্কটিকা সমুদিত হয়—ভয়ানক সংহার মূৰ্ত্তি কুজাটকা! মানব যখন মনে করিতেছে তাঙ্গার আশাবুক্ষের ফল সকল পরিণত-প্রায়, অমনি সেই বৃক্ষ সমুলে শুষ্ক হইয়া যায়। তখন মানব আমার মত দুরাশার সাগর গর্ভে নিপতিত হয়।” । সীতা রামচন্দ্রকে উল্লেখ করিয়া সরমার নিকট ক্ৰন্দন করিতেছেন – “হার, সখি, আর কিলো পাব প্রাণনাথে ? আর কি এ পোড়া আখি এ ছার জনমে দেখিবে সে পা দুখানি-আশার সরসে রাজীব ; নয়নমণি? হে দারুণ বিধি, কি পাপে পাপী এ দাসী তোমার সমীপে ?” ভয়ের ধ্বনি অতি লঘু এবং ভঙ্গ বাক্য সকল দ্রুত এবং চপল । "ড়-বাৰু, পালিয়ে এসগে, পালিয়ে o ==