প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৩২৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আদর্শন | কাৰ্ত্তিক ১২৮২৷৷ সে হতে তোমার ঘটেছে যাতনা, পরিপূর্ণ হ’ল যবন-বাসন, বিপুল ঐশ্বৰ্য হেরিয়া তোমার, পেয়ে অনাথিনী, করিল সংহার, সব শোভা তব, দম্য আর চোরে । (*२) দৈব প্রতিকূল হইল এখন, দাসী করি তোমা রাখিল যবন, ঘোর অত্যাচারে হয়ে ম্ৰিয়মাণ, প্রসব করিছ নিজীবি সন্তান, দাসীপুত্র, বীর কেমনে সম্ভবে ? ס\ל রতন-প্রস্থতি, ཀྱི་གླིང་ག হইলে ? মুকুতার হার কেন গলে দিলে ? তা না হলে কি মা দম্য দলে দলে অবিরত ক্লেশ দেয় আমা সবে ! (>8) অথবা যে দিন হলে বীরহীন কেন না বৈভব হল শূন্যে লীন ? মরুভূমি সম ফল জলহীন কেন না হইলে সাহারা মতন। - (>4) লোভী যবনেরা আসিত না হেথা ; পাইতে হ’ত না মরমেতে ব্যথা ; করিতে হ’ত না এ ঘোর দাসতা ; হারাতে না কভু স্বাধীনতা ধন। (४७) | ভাগ্য বলে মান তব অধীশ্বর— । | টিয়া গিয়াছে প্রায় অত্যাচার । কোনমতে দিন হতেছে যাপন। : o-------o- - 69 ভারত সন্তান! ঘুমায়োনা আর ;" | | চক্ষু মেলি দেখ দুর্দশা, মাতার, আর সর্বদেশ, প্রফুল্ল আননে করিছে গমন আনন্দিত মনে, মোদের জননী পুত্র ক্রোড়ে করি, নেত্ৰ জলে তীলৈ দিবস সঙ্করী। (ون) অমা-অন্ধকার,—ম্লেচ্ছ-অত্যাচার, গিয়াছে চলিয়া ; পূর্ণ শশধর— ইংরাজ-রাজত্ব, হয়েছে উদয় ভারত-গগনে ; দিতেছে অভয়। এখন ঘুমান উচিত কি হয় ? কর দৃঢ় পন, করিতে উদ্ধার, আর্য্য-জাতি-যশঃ, অবনীভিতর। (SR) পরস্পরে বাদ দিয়ে বিসর্জন, দৃঢ় করি বাধ একতা বন্ধন, একত। বিহনে হবে না কখন— জননীর এই দুর্দশা মোচন। (**) শিখ রে বিজ্ঞান করিয়া যতন ; পাশ্চাত্য উন্নতি, ইহারি কারণ ; . বিজ্ঞানের বলে কলে গাড়ী চলে, অদ্ভূত ঘটায় জীবনে অনলে ; সৈন্য-শিক্ষা, গড়, কামান, বন্দুক, স্মরিলে এ সব ফেটে যায় বুক, | পশ্চিম, বিজয়ী, এলিয়া উপরে . | শুদ্ধ মাত্র এই বিজ্ঞানের তরে ; ৷ তাই বলি-সবে কর উপাৰ্জ্জন | मन तिब्र गरे बिछानबड़न। }