প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৩৮৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


○Mがやり আৰ্যদর্শন | == অগ্রহায়ণ કરનાર রোধে অবশ্যই কিয়ং পরিমাণে মন্দ হইয়৷ আসিবে। ঐরুপ আবার আবেগের মান্দ্যাবস্থা বর্ণনে যদি হুস্ব যতি প্রয়োগ করি, তাহা হইলে উহা কিয়ং পরিমাণে ছন্দের অনুরোধে প্রবল হইয়া উঠিবে। প্রফুল্ল | জনক দৃশ্য, গভীর দৃশ্য, ভয়ঙ্কর দৃশ্য প্রভৃতি দৃশ্য বর্ণনেও ঐরূপ দৃশ্যের প্রকৃতির অনুরূপ ছন্দ নিৰ্ব্বাচন করিয়া লইতে হয় ; নচেৎ তাহদের ও প্রকৃতি বিকৃত হইয়া যাইবে। ইংরাজী কাব্য সকলে আমরা কৌশল বড় দেখিতে পাই না, আগা গোড়া একখানি কাবা কখন কখন একই ছনে রচিত হইয়া থাকে। কাব্য বহুবিধ রসের সমষ্টি, একই ছন্দে বহুবিধ রসের অবতারণ বড়ই অস্বাভাবিক। সংস্কৃতে কালিদাস প্রভৃতি মহাকবিগণের কাব্যে বর্ণনীয় বস্তুর যেখানে যেরূপ ছন্দ-রেখা স্বাভাবিক,লেখনী স্বতঃই যেন তাহা প্রসব করিতেছে। এই নিমিত্ত এক থানি কাব্য এক ছন্দে রচিত হওয়া দূরে থাকুক, রস বৈচিত্রতায় ছন বৈচিত্র স্থানে স্থানে প্রতি শ্লোকেই দেখিতে পাইব। কাব্য পাঠের সময় আমরা ছন্দের অনুসরণে কখন উখিত, কখন পতিত হইতেছি, | যেন কাব্য ক্ষেত্রের বৈচিত্রময় ভূমিতে स्वाभद्र! श्रृङ्गाहे बय१ कब्लािउश्।ि झनन्न | | dहै তাৎপৰ্য্য গ্রহণে কবির বিশেষ সতর্ক | | হওয়া উচিত ; যেহেতু কাৰ্যকলার ইহা | একটা প্রধান অঙ্গ। . | । ! श्यां निंीनं.रुदिवेश्म-गखंडङ्ग এরূপ ছন্দ নিৰ্ব্বাচন । প্রয়োজন, বাক্য নিৰ্বাচনেও তদ্রুপ। ছন্দ | যেমন বর্ণনীয় বস্তুর রেখা, বাক্য তেমনি বর্ণ। তীব্র, কোমল, গম্ভীর, ভয়ানক প্রভৃতি ভাবের বাক্য নিৰ্ব্বাচনও তাহার অনুরূপ চাই। তীব্রভাব কোমল বাক্যে প্রকাশ করিতে গেলে বাক্যের অনুরোধে তীব্রভাবের তীব্রত্ব অনেক কমিয়া যায়। আবার কোমলভাব, তীব্র বাক্যে কিয়ং পরিমাণে তীব্রত্ব পায় ; গম্ভীর ভাব, লঘু বাক্যে লঘুত্ব পায়, এবং ভয়ানক প্রভৃতি ভাবও, সহজ বাক্যে সহজ হইয়া আসে। বাক্যের এই তীব্র, কোমলত্ব প্রকৃতি মাত্র লক্ষ্য করিলেই যথেষ্ট হইল না, তাহর আর একট প্রধান গুণ লক্ষ্য করিতে হইবে ; সে গুণ এই,— বাক্য সকল যে ভাব বিষয়ে বহুল প্রয়োগ হইয়া থাকে, সেই ভাব বর্ণনে, সেই সকল বাক্য প্রয়োগই উচিত ; ইহার দুইটী ফল আছে ; তক্ষণ প্রভৃতি মূৰ্ত্তিতে যেমন আমরা যে পরিমাণ প্রস্তর ধাতুকে ডুবাইয়া লাবণ্য উপরে ভাসিতে দেখি, সেই পরিমাণ আমরা সৌন্দর্য উপলব্ধি । করিতে পারি। ভাষাতেও ভদ্রপ যে পরি মাণে আমরা ভাষার ভাযাত্ব ভুলিয়া বৰ্ণ । নীয় বিষয়ের লাবণ্য উপরে ভাসিতে দেখি, ভাষারও উৎকর্ষ। সেই পরিমাণে শব্দ সকল দুৰ্ব্বোধ্য হইলে লাবণ্য उशितः। ভিতরে লুকাইয় থাকে, তক্ষণ মূর্তির | | ८गोकरी यउडाँडाख्इष श्रेय cश्रुन| | কদাকার কর্ষক বোধ হয়, ভাষাও তদ্ভপ | | নীরম,কর্ষক ই উঠে, ও তার ীে-|