প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৩৮৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৩৭০ আর্য্যদর্শন । অগ্রহায়ণ ১৮২। বিদ্যুৎ বজ্র ও বিদ্যুদণ্ড। . (পূর্ব প্রকাশিতের পর।) - পূৰ্ব্বেই উক্ত হইয়াছে যে ভূপৃষ্ঠে ও ভূবা- তরল বস্তুদিগের পরস্পর ও পৃথিবীর সহিত যুতে তড়িৎ আছে। এই তড়িৎ কিরূপে উদ্ভূত হয় তাহা অদ্যপি নিশ্চিত হয় নাই। অনেকে অনেক রূপ কারণ নির্দেশ করেন । সম্ভবতঃ কতকগুলি কারণের সমবায়েই ইহার উৎপত্তি। কেহ২ রাসায়নিক ও ভৌতিক ক্রিয়াকেই এক মাত্র কারণ বলিয়া নির্দেশ করেন। পৃথিবীতে কত শত রাসায়নিক সংশ্লেষণ ও বিশ্লেষণ স্বতঃই সাধিত হইতেছে। আমাদের প্রতি নিশ্বাসেই রাসায়নিক ক্রিয়া, উদ্ভি দের প্রতি নিশ্বাসেও এই ক্রিয়া। প্রত্যেক জলবিন্দুর বাষ্পীভাবে ও কেহ২ তড়িতের উৎপত্তি নির্দেশ করেন। কিন্তু সকল রাসায়নিক ক্রিয়া হইতেই তড়িৎ উদ্ভুত | হয় না। পরিশ্রুত (Distilled ) জলের বাষ্পীভাবেও তড়িৎ উদ্ভূত হয় না। ক্ষার বা লবণাক্ত দ্রব্য জলের সহিত মিশ্রিত | থাকিলে বাষ্প যৌগিক-তড়িদাক্রান্ত ও জল বিয়োগিক জড়িদাক্রান্ত হয় । জলের সহিত অম্ল মিশ্রিত থাকিলে বিপরীত ক্রিয়া হইয়া থাকে অর্থাৎ বাষ্প বিয়োগিক | তড়িদাক্রান্ত হয়। এই কারণে ইহা অনুমিত হইয়াছে যে সমুদ্র-জলের লবণা| ধিক্য হেতু মেঘ যৌগিক-তড়িদাক্রান্ত ও | পৃথ্বী বিয়োগিক-তড়িদাক্রান্ত इडेब्र। থাকে। উদ্ভিদের নিশ্বাসও তড়িচ্চুৎপত্তির একটা কারণ বলিয়া নির্দিষ্ট কষ্টয়াছে'। i ঘর্ষণকেই বায়বীর তড়িতের ( Atmospheric elecocity)* বলিয়। নির্দেশ করেন। শিলা-বৃষ্টি ও বাত্যার সময় তড়িতের অত্যন্ত আধিক্য হইয়া থাকে এবং এই কারণে ঘর্ষণ একটী প্রধান কারণ বলিয়া বোধ হয়। সে যাহাঁহউক বায়বীয় তড়িতের ঠিক কারণ স্থির হয় নাই বটে,কিন্তু ইহার কার্য্য সকল অনেক পরিমাণে নিয়মবদ্ধ হইয়াছে। পূৰ্ব্বেই উক্ত হইয়াছে যে বিদ্যুৎ অতিfissol-fas-sà (high tension) छूझे বিভিন্ন তড়িতের মিলন ফল । এক প্রকার তড়িৎ মেঘে ও অপর প্রকার ভূপৃষ্ঠে থাকে। কখনই এক মেঘের তড়িৎ অপর মেঘের তড়িতের সহিত মিলিত হইয়াও বিদ্যুৎ উৎপাদন করে। মেঘ সকল সচরাচর যৌগিক তড়িদা ক্রান্ত কিন্তু কখন ২ বিয়ো গিক তড়িদাক্রান্তও হইয়া থাকে । সকলেই জানেন যে বিদ্যুৎ দৃষ্টি-সন্তাপক আলোক বিশেষ। এই আলোকের ঘূর্ণ আমরা শুভ্রই দেখিয়া থাকি কিন্তু উচ্চ পৰ্ব্বতের উপর হইতে গোলাপী আভা বিশিষ্ট দেখায়। তাহার কারণ উপরের বায়ুস্তরের গাঢ়তা অল্প । বিদ্যুৎ ক্ষণস্থায়ী বলিয়াই ইহার অপর নাম ক্ষণ প্রভ। কিন্তু ক্ষণস্থায়ী হইলেও ইহা *Isofo ( Instantaneous ) नरश् W | সে সম অনেকে আবার বায়ুবেগে ‘কঠিন ও অর্থাৎ অত্যন্ত অরক্ষণ থাকিলে ---