প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৩৯০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অগ্রহায়ণ ১৯৮২ | ७१७ | . श्रद । ভূপৃষ্ঠস্থ তড়িৎ স্তরের গাঢ়তাও অর হইয় আসে। সুতরাং বিদ্যুৎ-ক্ষ লিঙ্গের আবির্ভাবের সম্ভাবনা অল্পই থাকে। दिडीौग्न ठूय गईौक्र दाबl ठेश छानी গিয়াছে যে অধিক সঞ্চালক পাইলেই তড়িৎ তাহার ভিতর দিয়া প্রবাহিত সুতরাং ইহা সহজেই বুঝা যায় যে যদি কোন বাটী ধাতু দণ্ডবিশিষ্ট হয় এবং সেই ধাতু-দণ্ডের সহিত পৃথিবীর সংযোগ থাকে তাহা হইলে বিদ্যুৎ উহারই ভিতর দিয়া প্রবাহিত হইবে। কারণ বাটী অপেক্ষ ধাতু দও অধিক সঞ্চালক। সুতরাং বাটী অক্ষুঃ রহিবে। | আবার এই ধাতু দণ্ড যত অধিক সঞ্চালক ধাতুতে নিৰ্ম্মিত হয় ততই ভাল। তাম সৰ্ব্বোৎকৃষ্ট সঞ্চালক, সুতরাং তামে বিছাদণ্ড নিৰ্ম্মাণ করিতে পারিলে সৰ্ব্বাপেক্ষা উত্তম। কিন্তু উহা অধিক ব্যয়সাধ্য বলিয়া লৌহদণ্ডই ব্যবহৃত হইয়া থাকে। উত্তমরূপে নিৰ্ম্মাণ করিতে না পারিলে | বিছাদগু হইতে বিপদ ঘটিবার অত্যন্ত সম্ভাবনা। সচরাচর যে প্রণালীতে ইহা নিৰ্ম্মিত হইয় থাকে তাহাতে বিপদ না ঘটিলেও উদেশ্য সম্পূর্ণরূপ সফল হয় না। এই কলিকাতা নগরীতে উচ্চ প্রাসাদ | মাত্রেই এক একটী বিছাদও আছে। কিন্তু সকল গুলিরই নিৰ্ম্মাণ-প্ৰণালী একরূপ দোষাবহ । সকল স্থলেই লৌহদও গুলি বাটীর ভিত্তির করে নিহিত |এবং মধ্যে মধ্যে এক এক খণ্ড দীর্ঘ কাষ্ঠ দ্বারা ভিত্তির সহিত সংযুক্ত কিন্তু অলঞ্চ লক কাষ্ঠের দ্বারা সংযোগ সংযোগষ্ট নয় বরং তাহাতে বিচ্ছিন্নই থাকে। এরূপ নিৰ্ম্মাণ-প্রণালীর মূল কি তাঙ্গ জানিবার আবশ্যক নাই। ইহার দোষ এই যে ইহাতে বিদ্যুদণ্ডের পূৰ্ব্বোক্ত দুইটী উদ্দেশ্যের একটীও সম্পূর্ণ সফল হয় না। প্রথম উদ্দেশ্য—অর্থাৎ বজ্রপতন নিরাকরণ-সফল হয় না তাহার কারণ এই যে লৌহ দণ্ডের সহিত বাটীর সংযোগ নাই ; সুতরাং বাটীর তড়িৎ উহার অগ্রভাগ দিয়া বিকীরিত হইতে পারে না । মনে কর যৌগিক তড়িদাক্রান্ত একখানি মেঘ উপরে আছে। সেই মেঘের । প্রভাবে পৃথিবীতে তড়িৎ সংক্রামিত হইবে অর্থাৎ মেঘের যৌগিক তড়িতের আকর্ষণে বিয়োগিক তড়িং ভূপৃষ্ঠে এবং ভূপৃষ্ঠস্থ বস্তু সকলে জমিবে । যে বস্তু যত উচ্চ ত্যুহাতে তত অধিক তড়িৎ জমে এবং তজ্জন্য বিততিযাও অধিক হয়। এই কারণে উচ্চ বস্তু সকলেই । বজু, পতনের অধিক সম্ভাবন। এক্ষণ পূৰ্ব্বোক্ত কারণে যখন বাটীর উচ্চ ভাগ সকলে বিয়োগিক তড়িৎ প্রধাবিত হইয়াছে তখন লৌহ-দও-দিয়া বিকীর্ণ হইতে না পারিঙ্গে উহা মেঘের তড়িৎকে আকর্ষণ করিতে থাকিবে । সুতরাং উভয়ের সম্মিলনে বিদ্যুঙ্কুৎপত্তির সম্ভাবনা রছিল। আর যদি বাটীর উচ্চভাগে তড়িতের বিততিষা অত্যন্ত

অধিক, হয় তাহা হইলে তড়িৎ লৌহ- - দও ছাড়িয়া বাটী ভেদ করিয়া ধাবিত |