প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৩৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


الكتتيباتيجي যাক , সে অধীনে এলে নিরুদ্বেগে মহা সমারোহে অনঙ্গের বিবাহ দেওয়া যাবে। আমি এমন বলছি না যে পুপকেতুই সমরে নিহত হবেন, কিন্তু আজ জীবনসৰ্ব্বস্ব তনয়ার বিবাহ দিবেন, তার কাল সেই প্রাণাধিক জামাতাকে যুদ্ধে পাঠাবেন, ইহা পরিণামদর্শীর কার্য্য নয়, আমি এ বিষয়ে যখন চিন্তা করি তখন আমার হৃৎকম্প হতে থাকে।” রাজা মন্ত্রীর এই কথাতেই বিবাহের দিন বন্ধ রাখিয়া শত্রুজয়ে কৃতসঙ্কল্প হইলেন । হস্তিনার বিরুদ্ধে মে সৈন্যদল প্রেরিত হইল, জয়চন্দ্র তাহার অভিনেতৃত্ব পদে পুষ্পকেতুকেই বরণ করিলেন । পুষ্পকেতু অভিযানের আয়োজন করিতেছেন, এমন সময় পৃথু কানাকুজ-দ্বারে উপনীত হইলেন। পৃথু সৈন্য যার পর নাই পৌর জনের উপর উৎপীড়ন আরম্ভ করিল। সেই উৎপীড়ন নিবারণ করিতে গিয়া রাজা জয়চন্দ্র ক্ষত-বিক্ষত শরীর ও মৃচ্ছভিভূত এবং পুষ্পকেতু অচৈতন্য হইলেন এবং সেনানীর অভাবে সৈন্যগণ চতুর্দিকে ছত্রভঙ্গ হইয়া পড়িল । পুরী উৎসন্নপ্রায় হইয়া উঠিল। এই সকল অনিষ্টপাত নিবারণের জন্য সুমতি কামন্দকীর পরামর্শে পৃথুর প্রতিমূৰ্ত্তি বরবেশে সজ্জিত করিলেন, রাজার প্রতিমূৰ্ত্তি দ্বারা অনঙ্গমঞ্জরীর প্রতিমূৰ্ত্তির কর পৃথুর হস্তে সমপিত করিলেন। পৃথু অনঙ্গমঞ্জরীর প্রতি S)이 이 | f পুষ্পকেতু মুচ্ছ ভেঙ্গের পর দেখিলেন যে সমস্ত ঘটনাই পৃথুরাজের অভীষ্ট-সিদ্ধির অনুকূল—কিন্তু সকলই তাহার অভীষ্টসিদ্ধির প্রতিকূল। স্বত্তরাং পৃথু জীবিত থাকিতে অনঙ্গমঞ্জরীর পাণি গ্রহণের কোন আশা নাই দেখিয়া তিনি পৃথুর প্রাণবধে কুতসঙ্কল্প হইলেন । অনঙ্গমঞ্জরী এই সমাচার পাইয়া পৃথুরাজকে সাবধান করিবার নিমিত্ত নিম্নোঙ্কত পত্র থানি লিখেন :– - “জীবিতেশ্বর ! আপনি শুনিয়াছেন যে মন্ত্রী কন্যাপণে সন্ধির প্রস্তাব করায় পুষ্পকেতু যার পর নাই শঙ্কিত হয়েছে। মন্ত্রীর কুমন্ত্রণায় মহারাজ পাছে অসত্য-প্রতিজ্ঞ হন,এই ভয়ে সে আপনার জীবন সংহারে প্রবৃত্ত হইয়াছে, কারণ আপনাকে বিনষ্ট করিতে পারিলেই তার অভীষ্ট নিষ্কণ্টক হয় ; কিন্তু আপনার সঙ্গে সম্মুখ সমরে অগ্রসর হইতে তার সাহস হয় না। “এই নগরে গণপত মিশ্র নামে জনৈক ব্রাহ্মণ বাস করে, সে অন্যান্য বিষয়ে পাগল বটে, কিন্তু মারণ কৰ্ম্মে বিলক্ষণ পটু। অদ্য অমাবস্যা। আজি নিশীথ সময়ে সে ভাগীরথীর দক্ষিণতীরে অব স্থিত শ্মশানে আপনার মৃতু্য কামনায় অভিচার করবে। এতে আমি যার পর নাই সন্তুষ্ট হইব এই অভিপ্রায়ে দুরাচার আমায় অগ্রে সংবাদ দিয়াছে, কারণ সে জানে যে আমি তারই প্রতি অনুরক্ত । মূৰ্ত্তি, দর্শনেই মোহিত হইয়া নগৰুবিলু • • এই সংবাদ শুনিয়া আমার হৃদয় &নে বিরত হইলেন । সাশিয় ব্যাকুল হইয়াছে। সত্বরে =- | | অগ্রহায়ণ ১২৮২ । প্রাপ্ত গ্রন্থের সংক্ষিপ্ত সমালোচনা। W ====