প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৪৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


SSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSAAAASAAAA N)Wり ভাৰ্য্যদর্শন | বৈশাখ ১২৮২। | প্রাচীনকালের অনেক প্রসিদ্ধ স্থান । এক্ষণে সাগরগর্ভে নিহিত হইয়া নামশেষ হইয়া গিয়াছে। আমাদের বঙ্গ দেশেও এরূপ দৃষ্টান্ত বিরল নহে। পদ্মানদীর উপদ্রবে অনেক সমৃদ্ধস্থান বিলয় প্রাপ্ত হইয়াছে ইহা অনেকেই অবগত আছেন, আবার বঙ্গসাগরের অত্যাচারে এক্ষণে সুন্দরবন প্রভৃতি অঞ্চল ভাঙ্গিতে আরম্ভ হইয়াছে, এরূপ অবস্থা চিরস্থায়ী হইলে আমাদের দেশেরই বা কিরূপ দুর্দশা হইবে তাহাও বলিতে পারা যায় না। উপরি-উল্লিখিত উদাহরণ গুলির বিষয় বিবেচনা করিলে সহজেই প্রতিপন্ন হইবে যে এই সংহার কার্য্য কোন বিশেষ দেশ বা ভূভাগে নিয়মিত নহে, প্রত্যুত উহ! এই বিশাল পৃথিবীর সকল স্থানেই সমানরূপে প্রত্যক্ষ হইয়া থাকে। সমুদ্রতরঙ্গে পৃথিবীর যে পরিমাণ অংশ ধেত হইয়া পৃথগৃভূত হয়, উহার অতি সামান্য অংশ পুনৰ্ব্বার একত্র হইয়া চরক্কপে পরিণত হইয়া য২ "| কিঞ্চিৎ পরিমাণে ভূমির পরিমাণ বৃদ্ধি করে বটে, কিন্তু অধিকাংশই অপুনরাবৃত্তির জন্য সাগরের অতলস্পর্শ গর্ভে বিলীন হইয়া যায়। উক্তরূপ , চরের সংখ্যা ও পরিমাণ বৃদ্ধি সাগরের অতিশয় ংহারকতার স্বাক্ষীস্বরূপ। কারণ যতই মাতৃভূমির অধিকতর ক্ষয় সাধিত হয় ততই উক্তরূপ ক্ষুদ্র বা ভাসমান চরের বৃদ্ধি হইয়া থাকে, অতএব এক স্থান হইতে অপুসারিত মৃত্তিক স্থানান্তরে অপসারিত سے ہٹی بیعت پیسیف-=+ o o


... " o, হইয় যদিও বহুকাল পরে নূতন ভূভাগ | সমুৎপন্ন করে, তথাপি উছা যে এক ভূভা | গের স্থানান্তরে অপসরণ মাত্র প্রকৃত্ব বৃদ্ধি নহে তাহাতে আর অণুমাত্র সংশয় | নাই। যুদি সমুদ্রের সংহার কার্য্য কোন ৷ গুরুতর শক্তির দ্বারা প্রতিহত না হইয়া অব্যাহত ভাবে চলিতে খঙ্কিত তাহ হইলে উল্লিখিত প্রকার চরের উৎপত্তি | সত্ত্বেও পৃথিবী সাগরের জলরাশির দ্বারা আচ্ছাদিত হইয়া যাইত, ক্রমে চর উৎপন্ন হওয়া রহিত হইত ও আবার বরাহ অবতারের আবির্ভাব ব্যতীত পৃথিবীর পুনরুদ্ধার সাধিত হওয়া দুর্ঘট বা অসম্ভাবনীয় হইয়া উঠিত। কিন্তু সাগরতরঙ্গ দ্বারা পৃথিবীর যে ক্ষতি হয় উহা কেবল সমুদ্রের উপকূলেই সংঘটিত হইয়া থাকে, উপকূল ব্যতীত ভূমির মধ্যভাগে সাগরতরঙ্গ-জনিত ক্ষতির নাম মাত্ৰ নাই, কিন্তু তত্তৎস্থলে कि छूडांtशद्र अछि इञ्च ना ? निद्रख्द्रहे হইয়া থাকে। মহাদেশ প্রভৃতি স্থল ভাগের মধ্যে যেখানে সমুদ্রতরঙ্গের প্রসর নাই তথায়ও নিয়তই ভূমি ক্ষয় প্রাপ্ত হইয়া থাকে। আপাততঃ এরূপ মনে হইতে পারে যে বৃষ্টির জল দ্বারা ভূমির বিশিষ্টরূপ ক্ষতি হইবার সম্ভাবনা নাই, ফলেও বৃষ্টির জল দ্বারা যে কয় প্রকারে স্থলভাগের | ক্ষয় সাধিত হয়, তাহা এতাদৃশ মন । গতিতে হইয়া থাকে, যে ইটাং উহা হইতে | যে বিশেষ অনিষ্ট হইতে পারে মনে এরূপ | আশঙ্কা হয় না। কিন্তু স্বশ্বায়ুস্তক্ষরূপে | فالفنية، وية