প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৪৪১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


DSDSDS SSAAAS 83.8 আমরা যখন কোন বস্তুই অকৰ্ত্তক দেখিতে পাই না, তখন এই প্রত্যক্ষপরিদৃশ্যমান জগং যে সকর্তৃক তাহ বোধ হয় না। বহুদিন হইতে এই রূপে এই জগতের স্রষ্টার কল্পনা হইয়৷ আসিতেছে। কিন্তু যখন এইরূপে কল্পিত জগৎ-স্রষ্টার বিরুদ্ধে এই আপত্তি উত্থিত হয়—যে আমরা যখন সকল কারণেরই কারণ দেখিতে পাই, তখন জগৎকারণেরও যে কারণ নাই এ কথা আমরা বলিতে পারি না ; কিন্তু জগৎ কারণেরও কারণ কম্পেনা করিতে গেলে অনবস্থাপত উপস্থিত হয়-অর্থাৎ কারণপরম্পরার আনন্ত আসিয়া উপস্থিত হয় ; সুতরাং অনন্ত কারা-পরম্পরার কল্পনারূপ গুরুত্বের আশ্রয় লওয়া অপেক্ষ এই জগৎকেই স্বয়ংস্থষ্ট বলিলে কল্পনার অনেক লাঘব হয়। এই সম্প্রদায়ের লোকেরা এরূপ প্রতিবাদের বিরুদ্ধে কিছুই বলিতে সমর্থ হইবেন না ; অথচ প্রতিপক্ষের প্রতি পাষণ্ডু নাস্তিক প্রভৃতি গালিবর্ষণ করিবেন । ধৰ্ম্মনীতি বিষয়ে যেরূপ, এইরূপ রাজনীতি ও সমাজনীতি বিষয়েও যুক্তির উপাসকদিগের এই সম্প্রদায়ের লোকের নিকট হইতে অনেক অকারণ আপত্তি সহ্য করিতে হয়। এই সকল অযৌক্তিক আপত্তি খণ্ডন করিতে ংস্কারকদিগের অনেক সময় বৃথা অতিदांश्ऊि श्यां शांग्र । জ্ঞান মানেন না । তাহাদিগের মতে -A আর্য্যদর্শন । সমস্ত মানব জ্ঞানেরই মূল ভূমােদর্শন ও | তাহা অপেক্ষা অধিকতর পরিপুষ্ট ও উৎ দ্বিতীয় সম্প্রদায়ের লোকের স্বভাবজ পৌষ ১২৮২। সংযোজন, শিশু যখন মাতৃগৰ্ভ হইতে ভূমিষ্ট হয়, তখন সে কোন স্বভাবজ জ্ঞান লইয়া ভূমিষ্ট হয় না। সেই সদ্যপ্রস্থত শিশুতে জিজ্ঞাসাবৃত্তি ও জ্ঞানধারণ শক্তি থাAেমাত্র। জগতের সমস্ত বস্তুই তাহার জানিতে ইচ্ছ। হয়, সমস্ত বস্তুষ্ট সে জানিতে চেষ্টা করে, এবং সেই চেষ্টায় ভূয়োদর্শনে ক্রমে সমস্ত বস্তুরই জ্ঞান তাহার উপলব্ধি হয়। এই সকল ভূয়োদর্শনজাত জ্ঞানরাশি সংযোজনী শক্তি দ্বারা এরূপ পরস্পর-সমৃদ্ধ হইয়া থাকে, যে একটর স্মরণে অপরগুলির স্মরণ অনিবাৰ্য্যবেগে আসিয়া পড়ে। যাহার। স্বভাবজ জ্ঞান মানেন না, তাহারা জ্ঞানের অপরিবর্তনীয়তা ও অভ্রাতৃতাও স্বীকার করেন না। ভূয়োদর্শন যাহাদিগের জ্ঞানের আকর, তাহাদিগেয় জ্ঞান:সতত পরিবর্তনশীল,এবং নিত্য-সংস্কার সহ। যত निन याग्न, उडझे छूबामर्थनब्र श्रबिश्रुट्टेि ७ উৎকর্য সাধিত হয়। পঞ্চমবর্ষীয় বালকের ভূয়োদর্শন অপেক্ষ তাহার অশীতিবর্ষ বয়ঃক্রম কালের ভূয়োদর্শন প্রায়ই অধিকতর পরিপুষ্ট ও উৎকর্ষপ্রাপ্ত হইয়া থাকে। ব্যক্তিসমূদ্ধে যেরূপ, জাতি ও মানব সাধারণ সম্বন্ধেও প্রায় তদ্রুপ। মানব জাতির শৈশবাস্থায় যে ভূয়োদর্শন ছিল, সাধারণতঃ এখনকার ভূয়োদশন কর্ষ-প্রাপ্ত। সেই ভূয়দর্শনের উৎকর্ষ ও পরিপুষ্টির সহিত মানবজ্ঞান ও মানব