প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৫২০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


- ফাল্গুণ ১২৮২ | শালন-প্রণালী । & a 5 দিগের অধিকতর বিশ্বাস জন্মাইবার জন্য হিব্রু, হিন্দু প্রভৃতি প্রাচীন জাতিদিগের ব্যবস্থাপকের তাহাদিগের ব্যবস্থা দেবসম্ভত বলিয়া পরিচয় দিতেন। বাইবেলে লিখিত আছে যে মুসা সিনাই পৰ্ব্বতের উপরে স্বয়ং ঈশ্বরের নিকট হইতে দশটা অনুশাসন প্রাপ্ত হইয়া ছিলেন। বেদकङ्कहेग्न बक्रीब्र भूथ इहैण्ड दिनिर्गठ इहैয়াছে হিন্দুদিগের মধ্যে এইরূপ কিম্বদন্তী প্রচলিত আছে। যাহা হউক ব্যবস্থপ্রণয়ন-কারিদিগের যাহাতে সমাজস্থ ব্যক্তিবৃন্দের সর্বাপেক্ষা অধিক সুখ জন্মিতে পারে এবং যতদূর সম্ভব দুঃখ বিনষ্ট হইতে পারে এইরূপ,উপায় বিধান করা কর্তব্য এবং এই মূল মন্ত্ৰটী সৰ্ব্বদাই তাহাদিগের চিত্ত-ক্ষেত্রে জাগরূক থাকা উচিত। নতুবা তাহারা তাহাদিগের গুরুভারের অযোগ্য এবং তাহাদিগের প্রণীত বিধিব্যবস্থাও অসার ও অসম্পূর্ণ। নিৰ্দ্ধারিত নিয়মাবলী না থাকিলে কোনরূপেই সমাজের কার্য্য সুশৃঙ্খলন্ধপে | পরিচালনা হইতে পারে না। কাৰ্য্যবিশেষের নিম্পাদনের জন্য নিয়ম প্রণয়ন করা সমাজের অসভ্যাবস্থাতেই ঘটিয়া থাকে। একটী সমাজ যত পরিমাণে সভ্যতার উন্নত সোপানে আরোহণ করিবে, তাহার নিয়মাবলীও তত পরিমাণে বিধি বৃদ্ধ হইবে ; এবং সেই সমুদায় নিয়মের - م তৎপরিমাণে খণ্ডন ও রূপান্তর, করণ 'প্রয়োজন হইয়া উঠিবে। ২। বিচারক। সমাজের প্রচলিত ব্যব 8 স্থার অন্যথাচরণ করিলে বিচারালয়ে দণ্ডিত হইতে হয়। নিষিদ্ধাচরণ করিলে যে সমস্ত দণ্ডের নিয়ম থাকে তদনুসারে দণ্ড না দিলে সমাজের বিশৃঙ্খলার আর পরিসীমা থাকেনা। এইরূপ অবস্থায় স্বেচ্ছাচার প্রবল হওয়াতে সমাজের বন্ধন শিথিল হইয়া যায় এবং অচিরকাল মধ্যেই সমাজ লয় প্রাপ্ত হয়। বিচারকগণের স্বহস্তে নিয়ম প্রস্তুত করিবার কোন ক্ষমতা নাই। ব্যবস্থাপকবর্গ যে সমস্ত নিয়ম প্রচার করিয়া থাকেন, তাহাদিগেব ধীর ও প্রশান্তু ভাবে সেই গুলি শিরোধাৰ্য্য করিয়া কাৰ্য্য করিতে হয়। সেই সমস্ত নিয়ম অতিক্রম করিয়া তাহাদিগের না দক্ষিণ না বাম দিকে যাইবার ক্ষমতা আছে । ব্যবস্থাপরিতৃগণ সাধারণতঃ নানাবিধ বিধি ব্যবস্থা প্রস্তুত করিবেন এবং বিচারকগণ কাৰ্য্যতঃ বিশেষ বিশেষ অব

  1. সেই গুলি প্রয়োগ করিবেন। যদি

ব্যবস্থা জটিল অথবা দুৰ্ব্বোধ হয় তাহ হইলে তাহারা সেই গুলির গুঢ় অর্থ ও প্রকৃত তাৎপৰ্য্য সকলকে বুঝাইয়া দিবেন এবং এতদ্বিষয়ে বিচারকগণ উকীল প্রভৃতি আইন ব্যবসায়ী ব্যক্তিগণের নিকট "হইতে অনেক সাহায্য পাইয়া থাকেন । - ৩৷ সম্পাদক বা কাৰ্য্যকারী (executive)। ব্যবস্থাপক ও বিচারকগণের নানা রূপ আজ্ঞা বহন করা সম্পাদক বিভাগের কাৰ্য্য। যে সমস্ত ব্যক্তি সমাজের অনুশাসনের বিরুদ্ধে কাৰ্য্য করে তাহাদিগকে 1.