প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৫৪৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


T-For-E চৈত্র ১২৮২। জন্ম ষ্টয়ার্ট মিলের জীবনবৃত্ত । “মানব-মনের কার্য্যকলাপের বিশ্লেষণ” (১) বিষয়ক প্রস্তাবের দ্বিতীয় সংস্করণের মুদ্রাঙ্কন ও প্রকাশন । ইহা দ্বারা তিনি যে শুদ্ধ পিতৃদেবের পবিত্র স্মৃতির প্রতি যথোচিত ভক্তি প্রদর্শন করিয়াছিলেন এরূপ নহে, মনোবিজ্ঞানের প্রতিও তাহার প্রকৃত কৰ্ত্তব্যসাধন করা হইয়াছিল। डिनि টিপ্পনী লিথিয়া সেই সুন্দর পুস্তক থানির মত গুলিকে উন্নত বিজ্ঞান ও দর্শনের উপযোগী করিয়া দিলেন । এই গুরুতর কার্য্যে তিনি একাকী প্রবৃত্ত হন নাই। স্ববিখ্যাত দার্শনিক মিষ্টার বেইন্‌, বিখ্যাত ঐতিহাসিক মিষ্টার গ্রোট এবং সুবিখ্যাত শব্দশাস্ত্রজ্ঞ মিষ্টার ফিনডিলেটার--এই তিন জনে এইবিষয়ে প্রাণপণে তাহার সাহায্য করিয়াছিলেন । মনোবিজ্ঞান বিষয়ে যে সকল টিপ্পনী · প্রদত্ত হয়, তাহার প্রায় অৰ্দ্ধভাগ তৎকর্তৃক লিখিত এবং অপরাদ্ধ মিষ্টার বেইন, কর্তৃক প্রদত্ত । দর্শনে তিবৃত্ত সম্বন্ধে যে সকল টিপ পনী প্রদত্ত হয়, তাহার সমস্তই গ্রোটের শ্রমসম্ভত ; এবং শব্দশাস্ত্র সম্বন্ধে যে সকল অভাব গ্রপূরিত হয়, তাহ ফিণ্ডেলেটারেরই যত্নে। যৎকালে জেমস মিলের পুস্তকখানি প্রথম প্রকাশিত হয়, তখন মনোবিজ্ঞানের স্রোত প্রতিকুল দিকেই প্রধাবিত ছিল ; ভূয়োদর্শন ও সংযোজন 1 মত তখনও সম্যকৃরূপে প্রচারিত হয় (1) The Analysis கி. Phenomena of the Human Mind. 一 (\రి নাই ; এইজন্যই ইহা তৎকালে সাধারণ জনগণের নিকট ততদূর আদৃত হয় নাই। কিন্তু ইহা কতিপয় মনীষীর মনে এরূপ গভীর ভাব অঙ্কিত করে, যে উহার ভূয়োদর্শন ও সংযোজন মতের পক্ষপাতী না হইয়া থাকিতে পারিলেন না। এবং ইহাদিগেরই যত্নে এই মতের স্বীপক্ষ্যে যে অমুকুল পবন উথাপিত হয়, তাহারই প্রবাহ হেতু বর্তমান সময়ে ভূয়োদর্শন মনোবিজ্ঞানের এতদূর প্রভাব । বৈশ্লেষিক মনোবিজ্ঞান বিষয়ে যতগুলি পুস্তক লিখিত হইয়াছে, তন্মধ্যে মিষ্টার বেইন ও জেমস মিলের পুস্তকদ্বয়ই | সৰ্ব্বোৎকৃষ্ট। এই দুই খানিই উৎকৃষ্ট পাঠ্য পুস্তক হওয়ার সম্পূর্ণ উপযুক্ত । ইত্যবসরে ১৮৬৮ খৃষ্টাব্দের শরৎকালে— যে পালেমেন্ট রিফরম, অ্যাক্ট পাশ করেন—তাহার অধিবেশন ভঙ্গ হইল। মিল, গতবার ওয়েষ্টমিনিষ্টার কর্তৃকই পালে মেণ্টে প্রতিনিধি প্রেরিত হন। কিন্তু নর প্রতিনিধি মনোনীত করণকালে মিলের নাম পরিক্ষিপ্ত হইল। তিনি ইহাতে কিছুমাত্রও বিস্মিত হইলেন না। এই ঘটনার দুই তিনি দিন পূৰ্ব্বেও তাহার পৃষ্ঠপোষকেরা ভাবিয়াছিলেন যে তিনি এবারও ওয়েষ্টমিনিষ্টার কর্তৃক প্রতিনিধি মনোনীত হইবেন। সুতরাং মিল পরিক্ষিপ্ত হওয়ায় তাহারা মৰ্ম্মাস্তিক বেদন পাইলেন। মৰ্ম্মান্তিক বেদন পাইলেন বটে, কিন্তু বিশিত হইলেন না। মিল যে পরিক্ষিপ্ত হইবেন তাহা তাহার ও তদীয়