প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৫৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


----- (; o আর্য্যদর্শন । ..---- مست----- ب -------------------== জ্যৈষ্ঠ ১২৮২। । | আর কিছুই বলিতে পারি না। সে পতিপরায়ণতার মহত্ত্ব আছে বটে, কিন্তু তাহার কতদূর ধৰ্ম্মনৈতিক গৌরব আছে | তাহা ঠিক নির্ণয় করা সুকঠিন। অামাদিগের অনুমান এই, এবম্বিধ পতিপরায়ণতার শিক্ষা দিবার জন্যই কৃষ্ণদ্বৈপায়ন সাবিত্রীর উপকথার স্মৃষ্টি করি য়াছেন । “এক দিকে ভাৰ্য৷ এইরূপ উপদিষ্ট হইয়। যেমন পতির নিতান্ত আনুগত্য প্রকাশ করে, পতিও তেমনি আপনাকে ভাৰ্য্যার সম্পূর্ণ প্রভূ জানিয়া তাহার | উপর একাধিপত্য বিস্তার করিতে থাকেন। স্ত্রীজাতির প্রতি আমাদিগের এই | আমাদিগের এমনি সামাজিক ও পারি | বারিক ব্যবস্থা যে স্ত্রীকে যন্ত অবজ্ঞা করুন ক্ষতি নাই, কিন্তু স্বামীর কথা | ভাৰ্য্যাকে অবশ্য শুনিতে ও মানিতে হইবে। স্বামী দুশ্চরিত্র হইলেও স্ত্রীর কথা শুনিবেন না, পত্নী তাহার অসৎ পরামশের অধীন হইয়া চলিতে বাধ্য, স্বামীর মনে এতদূর প্রভৃত্বের ভাব থাকা নিতান্ত দৃষণীয় বলিয়া অবশ্য স্বীকার | করিতে হইবে । এই প্রভুত্বের ভাব এতদূর প্রবল, যে গৃহে প্রবেশ মাত্র সেই | ভাবজনিত দন্ত উপস্থিত হয়। তখন বোধ হয় তিনি যেন একটী বিশাল রাজ্যের রাজা, অমনি তাহার মেজাজ রুগ্ন হয়, ভাষা, কর্কশ ও স্বর গম্ভীর হইয় উঠে। তাছার বাহিরের ভাব গৃহে আদিয়া সমুদায় পরিবর্তিত হইয়া যায়। স্ত্রীর প্রতি পতি হাজার নিষ্ঠুৱা না 7 জানিলেও श्रृंखाडि প্রভূত্ব | বৰ্বল, তাহারা স্বাধীনভাবে চলিতে সমর্থ চরণ করুন কেহ দূষিবে না ; কিন্তু | সাধু ব্যবহার করিলে অনেকে স্ত্রৈণ বলিয়া নিন্দ ও উপহাস করিবে। পরস্পরের এইরূপ মনের ভাৰ যে কত অনিষ্টের কারণ হইয়াছে তাহা অনেকে জানেন | ছাড়িতে রাজি নহেন। যাহার কোন খানে প্রভুত্ব নাই, গৃহে আসিয়া ক্ষণকালের জন্যও তিনি প্রভু হইয়া মনের ইচ্ছা | পরিতুষ্ট করেন, ও মনের ক্ষোভ নিবারণ | করেন। এমন বিনা মূল্যের একাধিপত্য | কে পরিত্যাগ করিতে স্বীকৃত হইবে ?” প্রকার অসমুচিত ব্যবহার সর্বত্র বিদ্য মান দেখা যায়। স্ত্রীজাতি আমাদিগের } উপর সম্পূর্ণ নির্ভর করে ও নিতান্ত অধী | নতা প্রকাশ করিয়া থাকে। এই প্রকার | অধীনতা পাতিব্ৰতা ধৰ্ম্মের পরিচয় বলিয়া | গ্রহণ করা হয়। সামাজিক অবস্থা গতিকে আমাদিগের বামাগণ যে অধীনতা প্রকাশ | করিয়া থাকে, যে অনুরাগ বাহিরে দেখাইতে থাকে, প্রভূত্ব-গৰ্ব্বান্ধ পুরুষঙ্গতি | তাহাই পরম পরিশুদ্ধ পাতিব্ৰতা ধৰ্ম্মের নিদর্শন বলিয়া গ্রহণ করিয়াথাকেন কিন্তু আমাদিগের বামাগণকে পতিব্ৰতা বলিবার | অগ্ৰে বিবেচনা করা উচিত, তাহাদিগের সেই পতিপরায়ণতা কতদূর বিশুদ্ধ, কতদূর সামাজিকি অবস্থার অবশ্যম্ভাবী ফল, কত । দূর প্রকৃত প্রেমামুরাগের পরিচয়। “ লোকে বলে স্ত্রীজাতি স্বভাবতঃ কু