প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


SAAAAAA AAAA SAAAAA SAAAAA | क्षार्छ •२५२ ।। বঙ্গবামার ধৰ্ম্মনেতিক অবস্থা ।

  • =

&a জন্য এইমাত্র চান, যেন কোন মতে কুলকামিনীগণ অপর পুরুষের দৃষ্টিপথে পতিত না হয় এবং তাহাদিগের অসৎ প্রলোভনে না পড়ে। র্তাহারা আন্তরিক সতীত্বের প্রতি তত দৃষ্টি করেন ন}দৈহিক সতীত্ব রক্ষা হইলেই যথেষ্ঠ মনে করেন । র্তাহারাবিলক্ষণ জানেন, আমাদিগের রমণী| কুল অন্তঃপুর হইতে একবার বহির্গত হইলে অমনি অপবিত্র হইয়া যাইবে। তাহারা বিধবাগণের প্রতি আহেরহ নেত্র উন্মীলিত করিয়া আছেন। অতি সন্তপণে বিধবা কুলকামিণীগণকে গৃহমধ্যে আবদ্ধ তাহাদিগের আন্তরিক ভাব কেন যাহাই হউক না, পুরুষজাতি তাহার প্রতি দৃষ্টি করেন না। পুরুষজাতি নিশ্চয় জানেন, তাহাদিগের আন্তরিক ভাব বড় বিশুদ্ধ নহে । তাহারা স্ত্রীজাতিকে ক্ষণকালের জন্যও বিশ্বাস করেননা। কারণ র্তাহারা মনে মনে বিলক্ষণ জানেন, যে অবসর ও সুযোগ বিরহিত বলিয়াই তাহাদিগের | স্ত্রীজাতির দৈহিক পবিত্রত রক্ষণ হই, তেছে । বামাগণ যদি একবার সমাজে মিশিতে পায়, তাহা হইলে কি রক্ষা আছে ? বাস্তবিক তখন আমরা দেখিতে করিয়া রাখেন। আপনাদিগের বন্ধুবান্ধব পাইব, যাহাদিগের-সতীত্ব লইয়া আমরা ও আত্মীয়গণও যদি পুরস্ত্রীগণের কুশলবাৰ্ত্ত বিশেষ করিয়া জিজ্ঞাসা করে তাহীও আমাদিগের পুরুষজাতির পক্ষে অসহ্য জ্ঞান হয় । বাহিরে পুরাঙ্গণগণের কোনপ্রকার রব শুনিতে র্তাহার ভাল বাসেন না । আমাদিগের বামীগণ পুরুষজাতির নিতান্ত অধীন, স্বতরাং তাহাদিগকে পুরুষজাতির সকল নিয়োগেরই বশবর্তিনী হইতে হয় । সামাজিক আচার ব্যবহার অতিক্রম করি বার তাহাদিগের ক্ষমতা নাই। পুরুষ জাতি যাহাকে স্বশীলতা বলিয়া নির্দেশ করিয়া দিয়াছেন, বামাগণ সেই সুশীলতা লাভার্থ নিতান্ত যত্নবর্তী হয়। পুরুষ छांठि शांशंद्र ठेन्द्र शैौञ्जाङिग्न भांन ७ মৰ্য্যাদা স্থাপিত করিয়াছেন, রমণীকুল সুতরাং সেই ব্যবহারের অঙ্কুবর্তিনী হইয়৷ মানমৰ্য্যাদা রক্ষা করিবার জন্য যত্নশীল হয়। আমরা একদা তাহাদিগের সতীত্বের গৰ্ব্ব করিয়া বেড়াই, তাহারা চারিদিকে যথেচ্ছাচারিতার একেবারে শেষ করি তেছে। অতএব স্বাধীনতারূপ নিকষে পরীক্ষা করিলে, তাহারদিগের সতীত্ব ধন্মের গৌরব কথন রক্ষিত হইতে পারে না। তবে সে সতীত্বের ধৰ্ম্মনৈতিক মূল্য কি ? ইহার ধৰ্ম্মকুৰ্ব্বলতা দেখিলে, আমরা ইহাকে কোন মতে প্রকৃত সতীত্ব ধৰ্ম্ম বলিয়া নির্দেশ করিতে পারি না। সতীত্ব ধৰ্ম্মের পরীক্ষাস্থল স্বাধীনতা । সেই স্বাধীনতায় পরিস্থাপিত হইয়া যে সতীত্ব পরীক্ষিত হয় নাই, তাহার ধৰ্ম্মনৈতিক বল কতদূর তাহ আমরা কিছুই অবগত মহি । তাহার ধৰ্ম্মবল অবগত না হইয়া আমরা কি সাহসে তাহার গৌরব করিতে | উদ্যত হই । যখন স্ত্রীজাতি স্বাধীন থাকিয়া সতীত্ব ধৰ্ম্মে ভূষিত হইবে তখন