প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:আর্য্যদর্শন - দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৭৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


○8 আৰ্য্যদর্শন । ੋ ૨રાર i o | “যেইরূপে যবনের ক্রমে হতবল হইতেছে দিন দিন ; অদৃশ্যে বসিয়া । যেরূপে বিধাতা ক্রমোতেছে কল । ভারত অদৃষ্ট-যন্ত্রে ; দেখিয়া শুনিয়া । কার চিত্ত হয় নাই আশায় পুরিত ? দাক্ষিণাত্যে যেইরূপ মহারাষ্ট্রপতি হতেছে বিক্রমশালী, কিছুদিন আর মহারাষ্ট্র পতি হবে ভারত ভূপতি ; ৷ অচিরে হইবে পুনঃ ভারত উদ্ধার ; সাৰ্দ্ধপঞ্চশত দীঘ বৎসরের পরে, আসিবে ভারত নিজ সস্তানের করে।” “বিষম বিকল্প স্থানে আছি দাড়াইয় আমর, অদূরে রাজবিপ্লব দুৰ্ব্বার ; | নাহি কায আদৃষ্টের সিন্ধু সীতারিয়া, ভাদি স্রোতোধীন, দেখি বিধি বিধাতার। কেন মিছে খাল কেটে আনিবে কুমীরে ? প্রদানিবে স্বীয় হস্তে স্বগৃহে অনল ? : বরিয়া ক্লাইবে, খড়গ নবাবের শিরে প্ৰহারি চক্রাস্তবলে, লভিবে কি ফল ? ঘুচিবে কি অত্যাচার বল নৃপবর! : অধীনতা, অত্যাচার নিত্য সহচর।” “জ্ঞানহীন নারী অামি, তবু মহারাজ ! দেখিতেছি দিব্য চক্ষে, সিরাজদ্দৌলায় করি রাজ্যচ্যুত, শান্ত হবেনা ইংরাজ ; বরঞ্চ হুইবে মত্ত রাজ্যপিপাসায় । । | যেই শক্তি টলাইবে বঙ্গ-সিংহাসন । থামিবে না এইখানে হয়ে উগ্রতর, । শোণিতের স্বাদে মত্ত শাৰ্দ্দল যেমন, | প্রবেশিবে মহারাষ্ট্রসৈন্যের ভিতর। । | হবে রং - ভারতের অদৃষ্টের তরে, }পরিণাম ভেবে মম শরীর শিহরে ' ' “জানি আমি যবনের ইংরাজের भउ । ভিন্নজাতি ; তবু ভেদ আকাশ পাতাল | - নাহি বৃথা দ্বন্দ্ব জাতি ধৰ্ম্মের কারণে। | কি পাতসাহ, কি নবাব, আমাদের করে পুতুলের মত, খুজে খোজ নাহি হয়, বানর-ঔরসে জন্ম রাক্ষসী-উদরে, o | কাপায়েছে বীরশ্ৰেষ্ট স্বৰ্গীর নবাবে।” যবন ভারতবর্ষে আছে অবিরত | সাৰ্দ্ধপঞ্চশত বষ*; এই দীর্ঘকাল | , একত্র বসতি হেতু হয়ে বিদূরিত জেতা জিত বিষভাব, অস্থিত সনে হইয়াছে পরিণয় প্রণয় স্থাপিত। অশ্বথ-পাদপজাত উপবৃক্ষ মত, . হইয়াছে যবনের প্রায় পরিণত ।” বিশেষ তাদের এই পতন সময়, কে কোথায় ভাসিতেছে আমোদ-সাগরে। আমাদের করে রাজ্য শাসনের ভার। কিবা সৈন্য, রাজকোষ, রাজমন্ত্রণায়, কোথায় না হিন্দুদের আছে অধিকার ? সমরে, শিবিরে, হিন্দু প্রধান সহায় । অচিরে যবন রাজ্য টলিবে নিশ্চয়, উপস্থিত ভারতের উদ্ধার সময় ।” “अना उद्द-ईश्ब्राह्छदः नवभब्रिक्लिड । ইহাদের রীতি নীনি আচার বিচার - অণুমাত্র নাছি জানি ; নাজানি নিশ্চিত | কোথায় বসতি দূর-সমুদ্রের পার। । এই মাত্র কিম্বদন্তী ; আকারে, আচারে, ভয়ানক অসাদৃশ্য ; বাণিজ্যের তরে, { আসিয়ে ভারতে, এবে রাজ্যের বিস্তার }