পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/২৯০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শ্রাবণ, ১৩২ • । ब्रिाऊठझालांब्ल झांश । Se» হ্রাস হয় না, কেবল তাহার সৌন্দৰ্য্য এরং রমণীয়তার বৃদ্ধি হয়, তাহার সৰ্ব্বাংশের প্রাণ এবং গতি যেন সুস্পষ্টরূপে দীপ্তিমান হইয়া উঠে ; যে বঙ্কিম বঙ্গ সাহিত্যের গভীরতা হইতে অশ্রুর উৎস উন্মুক্ত করিয়াছেন সেই বঙ্কিম আনন্দের উদয়শিখর হইতে নবজাগ্ৰত বঙ্গসাহিত্যের উপর হাস্তের আলোক বিকীর্ণ করিয়া দিয়াছেন।” “লোক রহস্যে,’ ‘কমলাকান্তের দপ্তরে” ও বঙ্কিমচন্দ্রের বিবিধ উপন্যাসে। তঁহার ব্যঙ্গবিদ্রপপরিহাসের ক্ষমতার প্রচুর পরিচয় পাওয়া যায়। তিনি কোথাও কুপ্রথার বা ভ্ৰান্ত মতের BBYYS SSBDLSL D BBDS BBDYYS SYBB SDBDBDDDBBBD S DDDDD করিয়াছেন ; রস যথেষ্ট ব্যবহৃত হইয়াছে। কিন্তু সে রস সর্বত্ৰ শুভ্ৰসংযত।--নিৰ্ম্মল । কোথাও তাহা সুসঙ্গতির বা শীলতার সীমা অতিক্রম করে নাই। এমন কি ৪০ বৎসর পূর্বে প্রকাশিত ‘বঙ্গদর্শনের’’ কবিতার ছায়া দ্বিজেন্দ্রলালের কবিতায় দেখা গিয়াছে । -- দ্বিজেন্দ্ৰলালের “তোমারি বিরহে" গানে মজলিসে হাসির তরঙ্গ বাহিত--- আজও বহে ! বঙ্গদর্শন’ ১ম ভাগে "বিরাহিণীর দশ দশ” কবিতায় আছে, বিরহিনী প্ৰথম দশাদিনে আকুল রোদনের পর “外邻可可冲f帝【可 বান্ধি চারু কবরী, ঢাকাই শাড়িতে দিল ফের। $協電 W*州fWra পিঠা পুলি বানাওল কাদিতে ২ তার গিলিল তিন সেরা ।” অষ্টম দশা দিনে दि-दिषनैिौ মন দুঃখে কিনিল ইলিস । डिडिश नशन्डव्ल (재trTF TI थांश शनी थांन विधि विधि ।” দ্বিজেন্দ্রলাল বাঙ্গলায় বঙ্কিমচন্দ্রের প্রবর্তিত যুগের সাহিত্যিক - পরিাহাস-রসিক। তিনি ব্যঙ্গবিদ্রপে-পরিহাসে পারদর্শী ;-তাহার সমসাময়িক কালে এ বিষয়ে তাহার সমান কেহ ছিলেন না । তাহার ‘বিলেত ফের্তা ক ভাই” কোন অংশে ঈশ্বর গুপ্তের

    • थंन् एष क्षन् করবে দমন,

कि बारण उांश वृक्षहेत ?