পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৩৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Seg, OR o অধিকার । Ֆ8 S ( & ) বাড়ী আসিয়া রমেশের মা প্রভার জন্য ব্যাকুল হইয়াছে। তাহাকে না পাঠাইবার কারণ যদিও রামশরণ বা উমাতারা সব খুলিয়া বলেন নাই, তবুও সে অনেকটা বুঝিতে পারিয়াছে। কিন্তু প্ৰভাকে না দেখিলে তাহার মন আর স্থির হইতেছে না । তাই সে ২ ৩ দিন পরেই প্ৰভাকে আনিবার উদ্দেশ্যে চলিয়া গেল । রমেশ সকালে প্ৰবোধের বাড়ী পৌঁছিয়াছে ; এখনও প্ৰবোধের সহিত তাহার দেখা হয় নাই। মধ্যাহ্নে আহারাদির পর রমেশ একটি সুসজ্জিতকক্ষে মুকোমল শয্যায় শুইয়া আছে। কিছুক্ষণ পরে রমেশ দেখিল, প্ৰবোধ তাহারই কক্ষে আসিতেছে। আসিয়াই প্ৰবোধ বলিয়া উঠিল, “কি, রমেশ বাবু যে ? ভাল আছেন তা ? পরীক্ষা কেমন দিলেন ? এবার পরীক্ষায় বড় পরিশ্রম হইয়াছে। না ?” প্ৰবোধের এইরূপ আলাপে রমেশ অত্যন্ত আনন্দিত হইল। কিন্তু ক্ষণ পরেই সে বুঝিল, আলাপে ও ব্যবহারে প্রভেদ অনেক । রমেশ বলিল,-“খাটুনি ত আছেই, তবে পরীক্ষা ভালই দিয়াছি।” প্ৰবোধ বলিল,-“বােধ হয় আপনার ভগিনীকে লাইতে আসিয়াছেন, ङछ्रुं किं ?' “হঁ ! আপনি ঠিকই অনুমান করিয়াছেন !” “কিন্তু আসিবার পূর্বে আমাদের মত লওয়া কি উচিত ছিল না ?” “মতের জন্য ত অনেক দিন হইতেই লিখা হইতেছে । কিন্তু কোন ক্রমেই মত হয় নাই, তাই আমি আসিয়াছি।” পিতার দুঃখে রমেশের মন পূৰ্ব্ব হইতেই উত্তেজিত ছিল। প্ৰবোধ বলিল, “আপনি কি মনে করেন, আপনি আসিলেই লইয়া যাইতে পারেন ?” “আশা ত করিতে পারি।" “সে কিন্তু আপনার নিতান্ত ভুল।” ‘ভুল বোধ হয় আপনারও হইতে পারে।” “আমার ভুল ! আমি ছাড়িয়া না দিলে তাহাকে লইয়া যাইতে আপনার কি অধিকার আছে ? আর আমার অমতে তাহার। যাইবারও কোন অধিকার নাই । না পাঠাইবার কারণ ত আপনার পিতাকেই বলিয়া দেওয়া হইয়াছে। তবে আপনি কেন অনর্থক আসিয়াছেন ?” এই কথায় রমেশের হৃদয় অধিকতর উত্তেজিত হইয়া উঠিল। সে দৃঢ়স্বরে কহিল, “আমার পিতার মৰ্য্যাদা রক্ষা করিতে আমার কি অধিকার