পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৫৩৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আশ্বিন, ১৩২০ । , * পরিণাম । , , , ,8ሕsግጁ O . . ' ...ጃ እ፥ স্থির থাকিতে পারিল না। সে বাবা ঠাকুরের হঠাৎ এই অবস্থা দেখিয়া শোকে । দুঃখে ও বসন্ত বাবুর প্রতি একটা বিজাতীয় ঘূণায় কম্পিতৰক্ষে দ্রুতপদে রাস্তায় । আসিয়া পড়িল। উন্মুক্ত স্থানের বাতাসে সে একটু সুস্থ হইল বটে ; কিন্তু . उांद्यांद्र शाखा-श्लोव्न् निझुख न হইয়া বরং seifą হইল। সে বসন্ত বাবুদ্ধ বাটীর দিকে যাত্রা করিল। তাহার অদৃষ্ট আজ যাহাই থাকুক না কেন, , গোটকতক কথা সে বসন্ত বাবুকে বলিবেই বলিবে। বাবা ঠাকুর যে তাহার ৫ অগ্ৰে প্ৰস্থান করিবেন, এ কল্পনাও তাহার পক্ষে অসহ। কলিকালে পাপের ॥ প্রভাব হইলেও রামতনু ঠাকুরের বাড়ীতে সে কোন পথে আসিল -বৃদ্ধ তাহাই চিন্তা করিতে করিতে পূৰ্বপাড়ার দিকে চলিতে লাগিল। রাত্ৰি ১০ ৷ টা হইয়া গিয়াছে। বসন্ত বাবু আহারাদি শেষ করিয়া তাম্বুল । চর্বণ করিতে করিতে আরাম-কেদারায় আসিয়া উপবেশনপূর্বক সরকারকে । বৈবাহিকের হিসাবটা আর একবার ভাল করিয়া দেখিতে বলিলেন। sco, টাকার হাওনােটের দুই বৎসরের সুদ ধরা হইয়াছে; কিন্তু হিসাৰে । ভুল হইয়া গিয়াছে বলিয়া সরকারের যে হিসাবে কিছুমাত্র অভিজ্ঞতা নাই, । তাহাই তিনি বুঝাইতেছিলেন। সে যে মাসকাবারে ১৫২ টাকা ভীহর । নিকট ফাকি দিয়া লইয়া যায়, এ কথাও তিনি বলিতে বিশ্বত হইলেন নী* তিনি পুনৰ্বার ঠিক দিবার জন্য বলিতেছেন—এমন সময়ে বৃদ্ধ লোচন মণ্ডল । তাহার কোটরগতচক্ষু দুইটিকে বড় বড় করিয়া ক্রোধ কম্পিত্যকণ্ঠে তাহার | বাবা ঠাকুরের অবস্থা বর্ণনা করিল এবং ইহার জন্য যে তিনিই দায়ী—সে কথাও অসকোচে বলিয়া ফেলিল! আজি তাহার কিছুমাত্র ভয় নাই—লে এই ৷ রকমের ভদ্র “বামুনকে” কোনও রূপেই ভক্তি করিতে পারবে না। বসন্ত বাবু বৃদ্ধের মুখে তাহার বৈবাহিকের অবস্থা শ্রবণমাত্রেইনিতান্ত ভীত । হইয়া পড়িলেন। তাহার পদাঙ্গুলি হইতে মন্তক পৰ্যন্ত একটা বিদ্যুৎ-প্রবাহ । প্রবাহিত হইয়া গেল।--তাহার সমস্ত হৃদয় ও স্কুল দেহখানি ব্যাত্যাতাড়িত: কদলীবৃক্ষের ন্যায় কম্পিত হইতে লাগিল। স্মৃতি কি ভয়ানক। góমধ্যে জ্যেষ্ঠ বৈবাহিকের কথা তাহার মনে পড়িল, ঠিক এমনই দিনে, अशनई সময়ে তিনিও লোকের অজ্ঞাতে বাস্তুভিটার মায়া ত্যাগ করিয়া চলিয়া গিয়া, ছিলেন!। বসন্ত বাবু অহির হইয়া পড়িলেন। তাহার কঠিন হৃদয়ও বিবেকতাঙ্কণ । নায় মুহুমান হইয়া গেল ; না হইবেই বা কেন? তিনি ত মাহৰ । माईस्s ܘ