পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৫৫৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শ্রয় দেশবাসীর জন্য আজ তারতীয় সর্ব্বজাতির হৃদয়ে সহানুভূতির প্রেরণা: দেখিয়া মুগ্ধ হইলাম। দশ বৎসর পূর্বে এ দেশের লোকের অন্তরে এমন । স্বজাতিগ্রীতির অপূর্ব্ব বিকাশ কেহ দেখিয়াছিল কি ? মনের মধ্যে একটা । বিরাট সুরের বিচিত্র-বন্ধার বাজিতে লাগিল । . মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র, রিলিফ কার্য্যে যাইতেছি, বলিয়া গাড়ীতে । চড়িয়া বসিলাম। সহসা কে ডাকিল, “সুরেশ বাবু, আপনি কোথায় ?” । । চাহিয়া দেখিলাম, ব্রজগোপাল। সে স্কটীশ চার্চেস কলেজের চতুর্থ বার্ষিক । শ্রেণীর ছাত্র। আমার সহিত তাহার বহুদিনের পরিচয়। আমি বলিলাম, , “তুমি কোথায় যাও, মুখুজে ?” সে বলিল, “তারকেশ্বর!” DBDDBDS BDBDB BBDBBDBDDDD BDBDB DB BBD u DDD পাওয়া গিয়াছে! ধূর্জটীর জটাজালে জননী জাহ্নবীরই একাধিপত্য। এখন দামোদর জাহ্নবীকে ঠেলিয়া ফেলিয়া দেবাদিদেবকে গ্রাস করিয়া বসিয়া আছেন, শুনিয়াছি। দৃশ্যটা দেখিবার প্রলোভন সংবরণ করিতে পারিলাম না। রথ চলিল, কিন্তু অতি মন্দগতি । ক্রমশঃ বন্যার দৃশ্য দৃষ্টিপথে পড়িল। । সত্য এ ক্ষেত্রে কল্পনাকেও পরাজিত করিয়াছে। হরিপাল ষ্টেশনে গিয়া । ট্রেণ থামিল। আর অগ্রসর হইবার উপায় নাই। চারিদিক জলমগ্ন। . সম্মুখে সীমাহীন বারিবিস্তার ! রেলপথ ভগ্ন, বিপর্য্যস্ত। ষ্টেশনের . প্লাটফরম, বাঙ্গালী ও মাড়বারী ভদ্রলোকে পরিপূর্ণ। সকলেই বিপক্সের । সাহায্যার্থ সমবেত। কেহ অর্থ, আহার্যা ও বস্ত্র লইয়া মুক্তহস্তে काँक्टका: অবতীর্ণ-কেহ বা শরীর দিয়া দেশবাসীর সাহায্য করবেন বলিয়া আসিয়াছেন। প্লাটফরমের উপর বস্তা বস্তা চিড়া, মুড়কী, চাউল স্তুপীকৃত। বস্তু বড় উনান জালিয়া লোহার কড়ায় হালুয়া তৈয়ার হইতেছে এবং টিনোয়ঃ কেনেস্তারা পরিপূর্ণ করিয়া রাখা হইতেছে। , ' . রিলিফের উদ্যোগপর্ব্ব চলিয়াছে। স্বেচ্ছাসেবকের দল চতুর্দিকে প্রেৱিত । হইবে। দুই বন্ধু কোনও দলে মিশিলাম না। একেবারে খোদ তারকেশ্বরে পহছিয়া কর্ত্তব্য অবধারণ করিব। কিন্তু যাইব কি প্রকারে? পরামর্শের ; পর স্থির হইল, পদব্রজে রেলপথ ধরিয়া অগ্রসর হওয়া যাউক। আমাদের সংকল্পের কথা শুনিয়া কেহ কেহ বাধা দিল। রেলপথ জলমগ্ন, কোন কোন অংশ বন্যার স্রোতে ভাঙ্গিয়া গিয়াছে, পদব্রজে যাইলে জীবনের আশঙ্কা ।