পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৫৮১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গুরিয়া ঘূৰ্ণ শিবালিক মনে মনে স্থির করিয়া লইল যে, দুই জনের মধ্যে নিশ্চয়ই মনোমালিন্ত হইয়াছে। দুষ্ট অভিসন্ধি-সাধনের ঠিক সুযোগ উপস্থিত হইয়াছে জানিয়া সে গিরণকে, বলিল,-“বাল্যকালে আমি রাজা অনিলের বড় স্নেহভাজন ছিলাম ; অনিন্দাও আমাকে জ্যেষ্ঠ ভ্রাতার ন্যায় দেখিতেন। আপনাদের বিবাহের সময় আমি দুৰ্ভাগ্যক্রমে উপস্থিত থাকিতে পারি নাই। আজ। আপনাদের দুই জনকে এই স্থানে পাইয়া আপনাকে সৌভাগ্যবান মনে করিতেছি। একবার অনিন্দ্যাকে দেখিবার অনুমতি পাইতে পারিব কি ?” “আপনি স্বচ্ছন্দে তাহার সহিত সাক্ষাৎ করিতে পারেন।’ বলিয়া গিরণ একটু ক্ৰকুটী করিলেন। . তাহা শিবালিকের চক্ষু এড়াইল না। সে हद्धि अनिझांझ शबम श्रमन कब्रिव्य। শিবালিক কি চাহে ?

  • মেঘন্নান জ্যোৎস্নার ন্যায় বিষাদাভারাক্রান্ত অনিন্দ্যা ক্ষীণালোকিত কক্ষে ঘসিয়া আকাশ পাতাল ভাবিতেছিলেন। স্বামী যে তাহার প্রতি এরূপ রূঢ় ব্যবহার করিতেছিলেন সে জন্য যত না হউক, তাহার মস্তিষ্কের বিকার উমাশঙ্কা করিয়া তিনি ততোহধিক দুঃখাভিভূত হইয়া পড়িলেন। তাহার উপর সমস্ত দিন পথপৰ্য্যটনে তিনি অত্যন্ত ক্লান্ত হইয়া পড়িয়াছিলেন। ক্ষণ বসিয়া থাকিতে না পারিয়া তিনি অনাস্তৃত কক্ষতলে শুইয়া

উপস্থিত হইল। এক জন অপরিচিত পুরুষকে স্বীয় কক্ষে প্রবেশোদ্যত দেখিয়া সাধনী রমণী তৎক্ষণাৎ অতি চকিতভাবে উঠিয়া বসিলেন, এবং DDD DD u DB BB BDBDBSBDD DBB DBDBB S S * শিবালিক তাহার নিৰ্ণিমেষ দৃষ্টি , অনিন্দ্যার অনিন্দ্যসুন্দর মুখের উপর নিবন্ধ করিয়া অনভ্যস্ত কোমল ও মৃদু স্বরে, বলিল-“অনিন্দা, তোমার দাস