পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৫৯২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কি দুৰ্ব্ববুদ্ধি হইয়াছিল যে, তোমার স্যায় দেবীস্বরূপিণী পত্নীকে সন্দেহের দৃষ্টিতে দেখিয়াছিলাম! জানি না কি জন্য তোমায় দিন দিন মলিন ও বিষঃ দেখিদেখিতাম ; জানি না কেন সেই কাল প্ৰত্যুষে তোমার মুখে সন্দেহপূৰ্ণ কথা। শুনিয়াছিলাম। সে সকলের কারণ এখন আর তোমাকে জিজ্ঞাসা করিব না। কারণ তুমি যে কতদূর পতিগতপ্ৰাণা তাহ আজ বুঝিতে পারিয়াছি। অনিন্দ্যা, তুমি কি আমায় ক্ষমা করিবে ?” অনিন্দ্যা আনন্দে আত্মহারা হইয়া গদগদ কণ্ঠে কহিলেন, “নাথ, ক্ষমা ৷ প্রার্থনা করিয়া কেন ভগবানের নিকট আমাকে অপরাধী করিতেছেন ? ) আমার ন্যায় তুচ্ছ রমণী যে আপনার প্রণয়লাভে সমর্থ হইয়াছিল, তাহার অপেক্ষা সৌভাগ্য আমার আর কি হইতে পারে? আমার সুখের পরিসীমা D DDS SDD SHuY BB DBBDBD LBK DBB DDS DBDB BZ করিয়াছিল, সেই জন্যই আমি মনে মনে যৎপরোনাস্তি কষ্ট অনুভব করিতেছিলাম। আমি মুখ ফুটিয়া এ কথা আপনাকে বলিতে পারিতাম না। কল্য প্ৰত্যুষে আমি মনে মনে সেই কথা তোলাপাড়া করিতেছিলাম, আর ভাবিতেছিলাম, আমি তবে বুবি আপনার প্রকৃত পত্নী হইতে পারিলাম না। তাহার পরেই আমাকে লইয়া। আপনি বাহির হইয়া পড়িলেন। আপনার এই | দুই দিনের কাৰ্য্যাবলী আমি কিছুই বুঝিতে পারিতেছিলাম না। কিন্তু এখন च्यांषांद्र कि त्रांना !” . গিরণ আবেগভরে পত্নীকে চুম্বন করিয়া বলিলেন, “ওঃ, আমি কি ভ্রমেই পতিত হইয়াছিলাম! হায়, অদৃষ্টের কি ভীষণ পরিহাস! ভগবানের কি নিদারুণ পরীক্ষা, যে যত দুঃখকষ্ট তোমাদের ন্যায় আদর্শ রমণীদিগের কপালেই থাকে। সীতা, সাবিত্রী, শৈব্যা, দয়মন্তী প্রভৃতি পুতচরিতা আৰ্য্যনারীগণের মেত করুণ দুঃখ কাহিনী কাহার না হৃদয় পীড়িত করে ? আজ তুমি তাঁহাদেরই * ন্যায় মহিমময়ী ; অগ্নিপূত স্বর্ণখণ্ডের ন্যায় পবিত্রতায় উজ্জ্বল। আর আজ । তুমি আমাকে যে শিক্ষা দিয়াছ, তাহার জন্য আমি চিরকাল তোমাকে । গুরুর আসনে বসাইয়া রাখিব। তুমি আর কখনও আমায় কৰ্ত্তব্যে অব- | হেলা করিতে দেখিবে না। আজ তোমার কাছে শিখিলাম যে, যে প্ৰেম জীবনের কৰ্ত্তব্য কৰ্ম্ম ভুলাইয়া দেয়, তাহা প্ৰেম নহে, পরন্তু মোহ মাত্র। এতদিন আমি সেই মোহে মত্ত ছিলাম, মনুষ্যত্ব হারাইতে বসিয়াছিলাম। তুমি প্রকৃত পত্নীর কায করিয়াছ ; আমার নষ্টপ্রায় কৰ্ত্তব্যঙ্গান জাগাইয়া । SV