পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/১২২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


OV) अबई । ৩য় বর্ষ-২য় সংখ্যা । অমিয়নাথ পত্ৰখানা ছিাড়িয়া ফেলিয়া দিল-পদদলিত করিল। তাহার যনে হইল, সুরেন্দ্ৰকুমারকে সম্মুখে পাইলে সে তাহাকে হত্যা করিয়া পৃথিবীর পাপাতায় লাঘব করিত। ( দশ বৎসর পরে এক দিন অপরাহে একটি উদ্যানবেষ্টিত রম্য গৃহে প্ৰসিদ্ধ ব্যারিষ্টার অমিয়নাথের মোটর গাড়ী প্ৰবেশ করিল। গাড়ী বারান্দার মধ্যে স্থির হইতে না হইতে সুবেশে সজ্জিত দুইটি বালক ও একটি বালিকা আসিয়া উপস্থিত হইল। বারান্দার মধ্যে নানা পাত্রে রক্ষিত পাদপে, লতায় ও পরগাছায় বিকশিত বহুবিধ কুসুমের মধ্যে তাহাদিগকে সুন্দরতম কুসুম বোধ হইতে লাগিল। অমিয়নাৰ্থ অবতরণ করিয়া পুত্রকন্যাকে আদর করিলতাহার পর কক্ষে প্ৰবেশ করিল। বালকবালিকার সঙ্গে গেল । সুরেন্দ্ৰকুমার চারুশীলাকে বিবাহ করিলে অমিয়নাথ হৃদয়ে যে বেদনা পাইয়াছিল-তাহার প্রথম দারুণ আঘাত দূর হইলেই সে স্থির কয়িয়াছিল, সে অতীতের সব ভুলিবে-সংসারে সংগ্রাম করিয়া সুখ ও সাফল্য লাভ করিবেই। সে য়মাকে বিবাহ করিয়াছে। ব্যবসায়ে সে অসাধারণ সাফল্য লাত করিয়াছে। পত্নীর প্ৰেম, পুত্রকন্যার হাসি, সাফল্যের গৌরব, সঞ্চায়ের সুখ-তাহায় জীবন মধুময় করিয়াছে। Vb) সেই দিন সন্ধ্যায় পর অ্যাহারান্তে অমিয়নাথ গাড়ীৰারান্দার ছাতে বসিয়া ছিল। বর্ধর আকাশ-মেঘ আছে—বর্ষণ নাই-বড় গুমটি। কয়টা টবে মুখিকায় শ্বেত কুসুমে হরিৎ পল্লব যেন ঢাকিয়া গিয়াছে। পবনে মৃদু মধুর সৌরভ। অমিয়নাথ চুরুট টানিতে টানিতে কি ভাবিতেছিল। এমন সময়। রুমা আসিল। রমা স্বামীকে লক্ষ্য করিলজিজাসা করিল, “কি ভাবিতেহু ? অমিয়নাথ চুরুটটা টেৰলে মুক্ষিত আধারে রাখিয়া বলিল, “আজ একটা ș fi Treff Gift !” ,, , “fቅ ፕ” “আমি আদালতের ফেয়াত দিদির বাড়ী গিয়াছিলাম, জান । তথা হইতে কিষিায় সময় পথে-দুয়েঞ্জকুমায়কে দেখিতে পাইলাম।” н শকিছু জিজাসা করিলে না৷ ” শা। এই দশ বৎসর পয়ে তাহাকে দেখিয়া দল বিয়ক্তিতে চঞ্চল হইয়া