পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (তৃতীয় বর্ষ).pdf/১২৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জ্যৈষ্ঠ, ১৩১৯ ৷৷ སྣ་ oso একটি ক্ষুদ্র দ্বারপথে তাহারা একটি প্রাঙ্গণে উপনীত হইল। প্ৰাঙ্গণে জল দাড়াইয়াছে। সেই “জাল ভাঙ্গিয়া|” তাহার একটি জীর্ণ কাষ্ঠনিৰ্ম্মিত সোপানশ্রেণী বহিয়া মাটিকোটার দ্বিতলে একটি কক্ষে পৌছিল। সেই ঘরের এক পার্থে একটি মলিন শয্যায়। একজন মরণাহত রোগী শায়িত। ঘরে একটি কেরাসিন ডিবা অতি সামান্য আলোক ও প্রচুর ধূম উদ্গার করিতেছিল। ডিবার মুখে পলিতা পুড়িয়া অঙ্গারের কোরকের মত দেখাইতেছিল। কুলী টোকা দিয়া-সেটি ভাঙ্গিয়া দিলে আলোক উজ্জ্বল হইয়া উঠিল। সুরেন্দ্ৰকুমার দেখিল, সম্মুখে অমিয়নাথ ও রমা। সে বলিল-“কে অমিয়নাথ-মিস মিত্ৰ !” অমিয়নাথ বলিল, “হা, আমার পত্নী রমা ।” সুরেন্দ্ৰকুমার বলিল,-“আমি তাহা শুনিয়াছি। শুনিয়া ষে কত সুখী হইয়াছি, তাহা বলিতে পারি না । আমাকে ক্ষমা করিবে কি ?” “তুমি এখন ক্ষমা বা ক্ৰোধ সকলেরই অতীত লোকের যাত্রী। তোমাকে আমি ক্ষমা করিয়াছি।” সুরেন্দ্ৰকুমার বলিল,-“মৃত্যুর পূর্বে যে তোমাদের দেখা পাইলাম-এ আমার পরম সৌভাগ্য। এই দীর্ঘ দশ বর্ষ কাল যে কথা ব্যক্ত করি নাই ও করিতে পারি নাই আজ তাহা ব্যক্ত করিবার সময় আসিয়াছে। যাহার বন্ধুত্বে আমি জীবনে সুখ ও শান্তি পাইয়াছিলাম তাহার বিরক্তিভাজন হইয়া আমি বিষম বেদন অনুভব করিয়াছি ; আজি আশা হইতেছে, श्ब्र कूण আবার তাহার বন্ধুত্ব ফিরিয়া পাইব ।” সে বলিল, “অমিয়নাথ, মনে পড়ে-দশ বৎসর পূর্বে যে দিন অপরাহে তুমি কুমারী চারুশীলা দাসের সহিত তোমার বিবাহ স্থির হইয়াছে আমাকে এই শুভ সংবাদ দিতে আসিয়াছিলে ?” তাহার কোটরগত নয়নের দৃষ্টি অমিয়নাথের মুখে সংস্থাপিত হইল। অমিয়নাথ বলিল, “হঁ।” সুরেন্দ্ৰকুমার বলিল, “আমি তোমার কথা শুনিয়া স্তম্ভিত হইলাম। BDB BDBB BuSDD DBD DDDBDDiYHBuDBDDDB BB DDDB আপনার অধিকার বিস্তার করিয়াছিল। আমি চিকিৎসা করিতে যাইয়া ইহা জানিতে পারি ; আরও জানিতে পারি, গলিত-কুষ্ঠে তাহার জননীর DD DSS DBDBDBB BB BDD DDBDB DBDDD S DD BDBBD BB BDD